ব্রেকিং নিউজ

মানিকগঞ্জে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

editor ১২ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি :০১ ডিসেম্বর,শনিবার ।
মানিকগঞ্জে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে মানিকগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম বাদি হয়ে সদর থানায় মামলাটি করেন।
বিএনপি বলছে, এতোদিন মিথ্যা নাশকতার মামলা দিয়ে পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার ও হয়রানি করেছে। এখন আওয়ামী লীগ মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
মামলায় জেলা যুবদল ও ছাত্রদলের ১৬ জন নেতা-কর্মীকে আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া অজ্ঞাত আরও ১০-১২ জনকে আসামি করা হয়েছে।
মামলায় আসামিরা হলেন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া সাঈদ, জেলা যুবদলের সভাপতি কাজী রায়হান উদ্দিন টুকু, আকবর আলী, আজাই হোসেনর, মাসুদ রানা, শামীম হোসেন, আতাহার আলী, সিদ্দিকুর রহমান, লিটন মিয়া, করিম মিয়া, অলিন হোসেন, শ্যামল মিয়া, ফারুক মোল্লা, শামসুল আলম, আইয়ুর আলী এবং মো. রাজা।
এজাহার সূত্রে জানা গেছে, মাহিদুল ইসলামের মেজ ভাই জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি জাহিদুল ইসলামের (মানিকগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক) কাছে গোলাম কিবরিয়া ও কাজী রায়হান উদ্দিনসহ অন্য আসামিরা চাঁদা দাবি করে আসছিলেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌর সুপার মার্কেটের সামনে তাঁর ভাইয়ের ব্যক্তিগত গাড়ি (প্রাইভেটকার) গতিরোধ করে আসামিরা। এ সময় গাড়ি থেকে বের হলে জাহিদুল ইসলামের কাছে তাঁরা ১০ লাখ টাকা দাবি করেন। তবে চাঁদা দিতে রাজি না হলে আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করেন। পরে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তাঁরা চলে যান।
মামলার বিষয়ে কাজী রায়হান উদ্দিন বলেন, জেলা বিএনপির নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের বিরুদ্ধে এতোদিন ‘গায়েবি’ মামলা দিয়ে হয়রানি ও নির্যাতন করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধেও একাধিক ‘গায়েবি’ মামলা দেওয়া হয়। এ কারণে এক বছর ধরে তিনি মানিকগঞ্জের বাইরে অবস্থান করছেন। নির্বাচনে বিএনপির নেতা-কর্মীরা মাঠে না থাকতে পারেন, এ জন্য মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দেওয়া হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, স্থানীয় একজন প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির নির্দেশে এই মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা করা হয়।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত ছাড়া কিছু বলা সম্ভব নয়।
কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ