ব্রেকিং নিউজ

শুধুই ছাত্রলীগের জয়জয়কার ব্যতিক্রম শুধু রিকি হায়দার আশা

editor ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ breaking জাতীয়

কালের কাগজ ডেস্ক:১১ মার্চ-২০১৯,সোমবার।

ডাকসু ও হল সংসদের চূড়ান্ত ফলাফলে জয়জয়কারের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে সরকারি দল আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগ। ব্যতিক্রম কেবল শামসুন্নাহার হলের পূর্ণ সংসদে স্বতন্ত্র প্যানেলের বিজয়। আর ফজিলাতুন নেছা মুজিব হলের স্বতন্ত্র প্যানেল থেকে জয়ী হয়েছেন ভিপি পদে রিকি হায়দার আশা। এই চমক ছাড়া বাকি সব হলেই ছাত্রলীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। গতকাল রাত ৯টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে ভিপি পদে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও জিএস পদে গোলাম রাব্বানী এগিয়ে রয়েছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে গতকাল রাতে ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, হলগুলোর মধ্যে ৮টি হলে ভিপি, জিএস ও এজিএসসহ ১৩ পদের সবকটিতে ছাত্রলীগ বিজয়ী হয়েছে। হলগুলো হলো, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল, জিয়াউর রহমান হল, কবি জসীমউদ্দীন হল, জগন্নাথ হল, বিজয় একাত্তর হল, সলিমুল্লাহ মুসলিম হল ও জহুরুল হক হল। ভোট গণনা শেষে গতকাল হলগুলোর রিটার্নিং কর্মকর্তা ভোটের ফল ঘোষণা করেন।
হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের সহ-সভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হয়েছেন ছাত্রলীগ মনোনীত শহিদুল হক শিশির। ওই হলের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নির্বাচিত হয়েছেন একই প্যানেলের মেহেদী হাসান মিজান। একই প্যানেল থেকে সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) নির্বাচিত হয়েছেন সাদিল আব্বাস। বঙ্গবন্ধু হলে ভিপি পদে নির্বাচিত হয়েছেন ছাত্রলীগের আকমল হোসেন। জিএস পদে নির্বাচিত হয়েছেন মেহেদী হাসান শান্ত। তিনি পেয়েছেন ৯৯৫ ভোট। এজিএস পদে জয়ী হয়েছেন জুলফিকার হাসান। তিনি পেয়েছেন এক হাজার ১১ ভোট। বিজয় একাত্তর হলে ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন সজীবুর রহমান সজীব এবং জিএস নির্বাচিত হয়েছেন নাজমুল হাসান নিশান। জগন্নাথ হলে ভিপি পদে উৎপল বিশ্বাস এবং জিএস পদে কাজল দাশ নির্বাচিত হয়েছেন। সলিমুল্লাহ হলে ভিপি পদে এস এম কামাল এবং জিএস পদে জুলিয়াস সিজার নির্বাচিত হয়েছেন। এ ছাড়া জিয়াউর রহমান হল, কবি জসীমউদ্দীন হল ও জহুরুল হক হলে ১৩ পদের সবকটিতে ছাত্রলীগের প্যানেল বিজয়ী হয়েছে।

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব হল সংসদ নির্বাচনে সহ-সভাপতি (ভিপি) হয়েছেন স্বতন্ত্রপ্রার্থী রিকি হায়দার আশা। সাধারণ সম্পাদক পদে ছাত্রলীগের সারা বিনতে জামাল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এ হলে ভোটের আগে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছাত্রলীগের ৯ জন প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। ছাত্রলীগের পূর্ণ প্যানেল ছাড়া তিনজন প্রার্থী স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করেন। তারা তিনজনই নির্বাচিত হয়েছেন। অন্য দুজন হলেন সাহিত্য সম্পাদক পদে খাদিজা শারমিন, সংস্কৃতি সম্পাদক পদে তাসনীম হালিম মীম।

সূর্যসেন হলে ১৩ পদের মধ্যে ১১টি ছাত্রলীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি দুটিতে জয় পেয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী। ঘোষিত ফলাফলে সহ-সভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হয়েছেন ছাত্রলীগের মারিয়াম জাহান খান সোহান এবং সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নির্বাচিত হয়েছেন সিয়াম রহমান। শামসুন্নাহার হলে ভিপি পদে জয়ী হয়েছেন শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি এবং জিএস পদে জয়ী হয়েছেন আফসানা ছপা। তারা উভয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী। সুত্র বাংলাদেশ প্রতিদিন

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ