রাত ৮ টা বাজলেই অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হয় বেলকুচি ও এনায়েতপুরের যাত্রীদের

editor ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

এম,এ,মুছা, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) থেকে:০১ এপ্রিল-২০১৯,সোমবার।
সিরাজগঞ্জের সদানন্দপুর (কাড্ডার মোড়) থেকে অধিকাংশ সিএনজি বেলকুচি-এনায়েতপুর রোডে চলাচল করে। সারাদিন সিএনজি চালিয়ে যে আয় হয়, তাতে চালকদের সংসার খুব ভালভাবেই চলে যায়। কারণ, বাসের পাশাপাশি সিএনজির যাত্রীও অনেক বেশি। এনায়েতপুর থেকে সদানন্দপুর (কাড্ডার মোড়) নির্ধারিত ভাড়া ৪০ টাকা আর বেলকুচি থেকে ৩০ টাকা। এটাকে যাত্রীরা স্বাভাবিক মনে করে সিএনজিতে চলাচল করেন। কিন্তু রাত ৮টা বাজলেই শুরু হয়ে যায় সিএনজি চালকদের অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার তালবাহানা। এই সময় সদানন্দপুর (কাড্ডার মোড়) থেকে বেলকুচির ভাড়া হয় ৩০ টাকার ভাড়া ৬০ টাকা। আর এনায়েতপুরের ভাড়া ৭০-৮০ টাকার কম হলে চলবে না চালকদের। নির্ধারিত ভাড়া থেকে ভাড়া বেশি হওয়া সত্ত্বেও যাত্রীরা উঠছে সিএনজিতে কারণ তাদের গন্তব্যস্থলে যেতেই হবে। চালকরা এই ভাড়াকে অতিরিক্ত ভাড়া মনে করছেননা। সিএনজি চালকরা বলছেন, রাত একটু বেশি হলে ভাড়াতো একটু বেশি হবেই এটা আমরা যাত্রীদের কাছ থেকে বকশিস হিসেবে নিয়ে থাকি। সাধারণ যাত্রীরা বলছে, এটা বকশিস নয় এটা যাত্রীদেরকে রীতিমত হয়রানি করা। যাত্রীদের দাবি, সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক যেন এই বিষয়টির ওপর নজর দেন। এতে সাধারণ যাত্রীদের ভোগান্তি অনেকটাই কমে যাবে। এ বিষয়ে সিএনজি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম (মনি) জানায়, এ ব্যাপারে দ্রুত চালকদের সাথে কথা বলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার বিষয়টি সমাধান করা হবে।

কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ