শপথ নিতে আগ্রহী বিএনপির যে ৩ এমপি!

editor ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ জাতীয়

কালের কাগজ ডেস্ক:২৪ এপ্রিল-২০১৯,বুধবার।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত ৮ এমপির মধ্যে ২ এমপি শপথ গ্রহণ করার পরে শপথ নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে বিএনপির রাজনীতি। বিএনপির কড়া নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও শপথ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করছেন বিএনপির নির্বাচিত একাধিক নেতা।

সর্বসাকুল্যে এখন পর্যন্ত বিএনপির ৬ এমপির মধ্যে শপথে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বিএনপির ৩ এমপি। যারা বলছেন, শপথ বিষয়ে জনগণের চাপ থাকায় তারা শপথ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। যদিও দল কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে। দল থেকে বলা হয়েছে, শপথ নিলেই দলীয়ভাবে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে তাদের বিরুদ্ধে। সদস্যপদ বাতিলসহ, অবাঞ্ছিত ঘোষণাও করা হবে সেই সব ক্ষমতা লোভীদের।

এদিকে, সর্বশেষ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে বিএনপির নির্বাচিত সদস্য মো. হারুনুর রশীদ ‘জনগণের চাপের কারণে’ সংসদে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। সংসদে গিয়ে নানা অনিয়ম-দুর্নীতির কথা তুলে ধরতে চান হারুনুর রশীদ। তিনি জার্মান ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে’কে জানান, শপথ না নিলে তিনি এলাকায় যেতে পারবেন না এবং তাকে এলাকার লোকজন মারবে।

সোমবার (২২ এপ্রিল) নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালেও শপথে আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন হারুন। তিনি বলেন, জনগণ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসন থেকে ভোট দিয়ে তাকে নির্বাচিত করেছে। সাংসদ হিসেবে শপথ নেওয়ার জন্য জনগণের চাপ রয়েছে। জনগণ বলছে, সারা দেশে কী হচ্ছে সেটা আপনার দেখার বিষয় নয়, আপনি জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন সংসদে গিয়ে জনগণের কথা বলবেন। এভাবেই জনগণ তার ওপর চাপ দিচ্ছে বলেও দাবি করেন হারুনুর রশিদ।

এর আগে বগুড়া- ৪ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির এমপি মো. মোশাররফ হোসেন শপথ নিতে জনগণের চাপের কথা তুলে ধরে বলেন, যেহেতু জনগণ চায় আমি সংসদে যাই, সুতরাং আমি সংসদে যাব। কিন্তু এর জন্য একটু সময় লাগবে। আমি জনগণকে আশ্বস্ত করতে চাই।

এদিকে শপথ নিয়ে জনগণের হুঁশিয়ারির কথা জানিয়েছেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে বিএনপির বিজয়ী জাহিদুর রহমানও। সম্প্রতি তিনি প্রকাশ্যে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, শপথ না নিলে তার এলাকার লোকজন তাকে হেনস্তা করতে পারে- এমন আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এমনকি তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতও করা হতে পারে। ফলে জনগণের কথা মাথায় রেখে শপথ নিতেই আগ্রহী তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ