ফণীর বিপদ দূর, প্রধানমন্ত্রীর শুকরিয়া

editor ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ breaking slider-top প্রধান খবর

কালের কাগজ ডেস্ক::০৪ মে ২০১৯,শনিবার।

ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি না হওয়ায় আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

লন্ডন সফররত প্রধানমন্ত্রী এই শুকরিয়া আদায় করেছেন বলে শনিবার তার কার্যালয় থেকে পাঠানো বার্তায় জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট খুবই মারাত্মক ঘূর্ণিঝড় ফণী দুর্বল হয়ে শনিবার সকালে বাংলাদেশ সীমানায় প্রবেশ করে। সর্বশক্তিমান মহান আল্লাহর অশেষ কৃপায় ঘূর্ণিঝড়টি স্থলপথে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যশোর-সাতক্ষীরা অঞ্চল হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়। যার ফলে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এখন পর্যন্ত বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

ফণীর আগমনের খবরেই লন্ডন থেকে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফণীর আঘাতে সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবলায় তিনি প্রশাসন ও দলীয় নেতাকর্মীদের দিক-নির্দেশনা দেন।

ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়। শুক্রবার বাদ জুমা সারা দেশে মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল করা হয়।

এদিকে, শনিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন।

সভায় সরকারি-বেসরকারি সংস্থাগুলোর দুর্যোগ মোকাবেলায় গৃহীত প্রস্তুতি বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

দ্রুত সময়ের মধ্যে উপকূলীয় এলাকার প্রায় সাড়ে ১২ লাখ মানুষকে সাইক্লোন আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে আসার জন্য সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানানো হয়।

এছাড়া সেনা, নৌ, বিমানবাহিনী, কোস্টগার্ড, পুলিশ, আনসার-ভিডিপিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গৃহীত কার্যক্রমেও সন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

সভায় বিশ্ব পরিমণ্ডলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় রোল মডেল হিসেবে খ্যাত যে কোনো দুর্যোগকালে বাংলাদেশ সরকারের সকল সংস্থাগুলোর সমন্বিতভাবে কাজ করার যে কৃষ্টি তৈরি হয়েছে, তা ভবিষ্যতে আরও সুদৃঢ় করার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ