ব্রেকিং নিউজ

সবে শুরু, আরও কাঁদতে হবে: ফখরুলকে হানিফ

editor ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ breaking slider-top প্রধান খবর

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক: মে ১১, ২০১৯শনিবার।

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত বিষফোঁড়া। এরা যতদিন থাকবে, মানুষের ওপর আঘাত করবে। উন্নয়ন-অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত করবে। এজন্য এদের চিরচরে উপড়ে ফেলতে হবে।

শনিবার চট্টগ্রাম নগরীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে চট্টগ্রামের সাত জেলা কমিটির বিশেষ বর্ধিত সভায় তিনি একথা বলেন।

চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর, দক্ষিণ, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবন জেলা আওয়ামী লীগের এই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুল মতিন খসরু।

সভাপতির বক্তব্যে হানিফ বলেন, ‘পরিষ্কার জানিয়ে দিতে চাই- লন্ডনে বসে ষড়যন্ত্র করে লাভ হবে না। খুনি, সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচার করব। বিচারের রায়ও কার্যকর করব।’

বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘মির্জা ফখরুল বলেছেন- কর্ণফুলী টানেল ও পদ্মা সেতু দিয়ে জনগণের কোনো লাভ হবে না। আসলে তাদের মানসিকতাই উন্নয়নবিরোধী। ক্ষমতায় থেকে এরা দেশকে পিছিয়ে দিয়েছে। এখন বাইরে থেকে আঘাত করছে। তাদের লক্ষ্যই দেশকে কিভাবে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করা যায়।’

হানিফ বলেন, ‘মামলা হওয়ায় বিএনপির নেতাকর্মীরা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন, ঢাকায় রিকশা চালাচ্ছেন। এতে নাকি ফখরুলের চোখে পানি এসে গেছে। কেন মামলা হয়েছে? পেট্রলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করেছে, তাই মামলা হয়েছে। ২১ আগস্ট আমাদের নেত্রীর ওপর রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় গ্রেনেড হামলা হলো, তখন কোথায় ছিল আপনার চোখের পানি? চোখে পানি সবে আসা শুরু হয়েছে, আরও আসবে, আপনাদের আরও কাঁদতে হবে।’

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টে ঐক্য নেই। ঐক্যফ্রন্টও ভেঙে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ থেকে অনুপ্রবেশকারী, সুবিধাবাদীদের বের করে দিতে হবে। সংগঠনে আদর্শের চর্চা করতে হবে।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, নগর কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলে করিম চৌধুরী, দক্ষিণের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

সম্প্রতি সংবাদ