ব্রেকিং নিউজ

সম্প্রতি নারী নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে গেছে ———স্বাস্থ্যমন্ত্রী

editor ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ breaking সারাদেশ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ ১২ মে-২০১৯,রবিবার।
স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, দেশে অতীতেও নারী নির্যাতন ছিল। তবে সম্প্রতি নারী নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে গেছে। নারী নির্যাতন বিশেষ করে শরীরে আগুন দিয়ে হত্যার মতো ঘটনাও ঘটছে। এ ঘটনায় শুধু ভূক্তভোগী নারীর স্বামীই নন, শ্বশুরবাড়ির যাঁরাই নির্যাতনের সঙ্গে জড়িত তাঁদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে। নারী নির্যাতনকারী যেই হোক, কাউকে ছাড় দেওয়া যাবে না। রোববার মানিকগঞ্জ জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কে জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌসের সভাপতিত্বে আইন শৃঙ্খলা সভায় পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মহীউদ্দীন, পৌর মেয়র গাজী কামরুল হুদা, সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দ, প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম ছারোয়ার ছানু,সহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ বছরের মার্চে ১০ টি নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এপ্রিল মাসে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা বেড়েছে। এপ্রিল মাসে ১৬টি নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া মার্চের তুলনায় এপ্রিলে মাদক উদ্ধারের ঘটনা বেড়েছে। পুলিশ সুপার বলেন, বিগত সময়ের চেয়ে জেলায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন হয়েছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ফসলি জমিতে কোনোভাবেই ইটভাটা করা যাবে না। কৃষিজমি রায় এটি কঠিনভাবে দমন করতে হবে। ইটের পরিবর্তে বালু ও সিমেন্টের ব্লক ব্যবহার করা যেতে পারে।
এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, গত দুই মাসে জেলার পাঁচটি অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এ ছাড় বেশ কয়েকটি ইটভাটায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করা হয়েছে।
দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা শারমিন বলেন, তাঁর উপজেলায় অধিকাংশ বেসরকারি ক্লিনিক গুলো নিয়মতান্ত্রিক পরিচালিত হচ্ছে না। এসব ক্লিনিকে চিকিৎসক ও নার্স থাকে না। এ ছাড়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো রোগ নিয়ন্ত্রণের অনুমতি নিয়ে ক্লিনিকের কার্যাক্রম চালাচ্ছে। এ বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিভিল সার্জনকে কার্যকর পদপে নিদে নির্দেশ দেন।
জেলা সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী এমদাদ হোসেন বলেন, ঢাকার ধামরাই উপজেলায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ওজন নির্ণয়কারী প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এই মহাসড়কে সর্বোচ্চ ৩০ টন ওজনের মালবাহী গাড়ি চলাচল করা কথা থাকলেও ৫০ টনেরও বেশি ওজনের গাড়ি চলাচল করছে। এতে মহাসড়কটি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে।
জেলা ডায়াবেটিস সমিতির সাধারন সম্পাদক সুলতানুল আজম খান বলেন, পৌরসভার অধিকাংশ রাস্তাঘাট ভাঙাচোরা। পৌর এলাকায় ডায়াবেটিস হাসপাতালের রাস্তাটির বেহাল দশা। এতে হাসপাতালে যাতায়াতে রোগীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এ ব্যাপারে পৌর মেয়র গাজী কামরুল হুদা সেলিম বলেন, অতিরিক্তি ওজনের মাটিবাহী ড্রামট্রাক চলাচলের কারণে রাস্তাঘাটের এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে এসব সড়ক সংস্কারের কাজ দ্রুতই শুরু হবে।
দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম বলেন, দৌলতপুরের আটটি ইউনিয়নের মধ্যে চারটিই নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। যমুনা নদী তীরবর্তী চরাঞ্চলগুলোতে বর্ষাকালে গবাদিপশু ডাকাতির ঘটনা ঘটে। বিস্তৃর্ণ এই চরে একটি পুলিশ ফাঁড়ি ও ১০ শয্যার একটি হাসপাতাল স্থাপনে দাবি জানান।
হাসপাতাল স্থাপনের বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সরেজমিনে পরিদর্শন করে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দিতে সিভিল সার্জনকে নির্দেশ দেন। মন্ত্রী বলেন, জায়গা নির্ধারণ করা গেলে পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনে পদপে নেওয়া হবে।

কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ,ভি

সম্প্রতি সংবাদ