শিবালয়ের দুবুলিয়ায় ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটায় পাকা রাস্তা হুমকির মুখে

editor ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

সুরেশ চন্দ্র রায়(শিবালয়)মানিকগঞ্জ:১৫ মে-২০১৯,বুধবার।
মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার মহাদেবপুর ইউনিয়নের একটি অন্যতম গ্রাম দুবুলিয়া। যে গ্রামের অধিকাংশ মানুষের জীবন জীবিকার অন্যতম মাধ্যম কৃষি। একসময়ে পণ্য পরিবহন ও যাতায়াতের কোন ভাল রাস্তা ছিল না এ গ্রামে। কয়েক বছর পূর্বে এলাকার কতিপয় জনসাধারন ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের আপ্রাণ প্রচেষ্টায় নির্মিত হয় মহাদেবপুর- দুবুলিয়া পিচঢালাই রাস্তা। যে রাস্তাটি অত্র এলাকার জনসাধারনের যাতায়াত ও পন্য পরিবহনের একমাত্র অবলম্বন। রাস্তাটির পূর্ব পাশে রয়েছে পুরাতন একটি জলাশয়। কালক্রমে সেটি এখন প্রায় ভরাটের পথে। বর্তমানে একটি মাটি ব্যবসায়ী চক্র তাদের লোলুপ দৃষ্টি নিক্ষেপ করেছে এই পুরাতন জলাশয়ের দিকে। মাটি খননের যন্ত্র হিসেবে তারা ব্যবহার করছে দানব প্রকৃতির অবৈধ ড্রেজার। এলাকার রাস্তাঘাট, ঘরবাড়ি ও পাশ্ববর্তী ফসলী জমির দিকে না তাকিয়ে তারা তাদের পকেট ভর্তির জন্য অবাধে মাটি বিক্রি করছে বিভিন্ন জায়গায়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা জানান, এই ড্রেজার ব্যবসার মূল নায়ক দোতরা গ্রামের বাসিন্দা মোঃ লুৎফর রহমান। তিনি টেপড়া ্এলাকায় বাসা নিয়ে থাকেন। তার সাথে মহাদেবপুর ইউনিয়নের কয়েক জন যুক্ত রয়েছে। ড্রেজার দিয়ে তারা ৩০-৪০ ফুট গভীর করে মাটি কাটছে। এভাবে চলতে থাকলে অচিরেই ধ্বংস হবে মহাদেবপুর-দুবুলিয়া পিচঢালাই রাস্তা, আশেপাশের ফসলী জমি এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে মোড়ানো দুবুলিয়া গ্রাম।
সরেজমিনে দেখা গেছে, মাটি ব্যবসায়ী চক্রটি প্রায় তিন বিঘা জায়গার উপর ড্রেজার বসিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে নির্বিঘ্নে। ড্রেজার ব্যবসায়ী লুৎফর রহমান দৈনিক কালের কাগজকে মোবাইল ফোনে জানান, আমার কাছে কোন লিখিত বা মৌখিক অনুমতি পত্র নাই। আমি দীর্ঘ দিন ড্রেজার ব্যবসার সাথে জড়িত। আজ পর্যন্ত কারো সাথে আমার কোন মনোমালিন্য হয়নি। আপনার সাথেও হবে না। আপনার বিকাশ নাম্বারটা আমাকে দেন।
মহাদেবপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা জনাব মোঃ ফজলুল হক বলেন,এখন পর্যন্ত আমার কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। আমরা এখনই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।
শিবালয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এফ এম ফিরোজ মাহমুদ বলেন, ড্রেজারের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।
কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ