খালেদা জিয়াকে অসম্মান করতেই ৩০ টাকার ইফতার পার্টিতে আসেননি ড. কামাল

editor ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক:৩১ মে-২০১৯,শুক্রবার।

রাজনীতিবিদ ও বুদ্ধিজীবীদের সম্মানে বিএনপির ইফতার মাহফিলে আসেননি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। মঙ্গলবার (২৮ মে) রাজধানীর ইস্কাটন লেডিস ক্লাবে ৩০ টাকা বরাদ্দ রেখে ইফতারের আয়োজন করে বিএনপি।

ইফতারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের মধ্যে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবু সাঈদ, জগলুল হায়দার আফ্রিক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসিন মন্টু, ঐক্যফ্রন্ট নেতা হাফসা আমিন উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু আসেনি ড. কামাল হোসেন।

এর কারণ জানতে চাইলে সুব্রত চৌধুরী জানান, ড. কামাল হোসেন অসুস্থ। তার পক্ষে ৩০ টাকার ইফতারি করা সম্ভব নয়। তিনি বংশগত ধনী ব্যক্তি। তার মতো উচ্চ-মর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তি মাত্র ৩০ টাকার ইফতারি করবেন, তা মানা যায় না। এছাড়া ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আমরা আবদার করেছিলাম যদি খালেদা জিয়ার স্মরণে ৩০ টাকার ইফতারি করা যায়, তবে ড. কামাল হোসেনের সম্মানে আরো ৫ টাকা যোগ করতে। কিন্তু বিএনপি বিষয়টি নাকচ করে দেয়। যা ছিলো ড. কামালের জন্য অসম্মানের। বিএনপির মনে রাখতে হবে, ড. কামাল হোসেন বেগম খালেদা জিয়ার চেয়ে কোনো অংশেই কম নন।

এ প্রসঙ্গে ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, তার ছোট মেয়ের বাসায় ইফতার মাহফিল থাকার কারণে তিনি বিএনপির ইফতার মাহফিলে আসেননি।

ড. কামাল হোসেন বলেন, বিব্রতকর রাজনীতি আমার পছন্দ নয়। লেডিস ক্লাবে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেছিলো বিএনপি। এই হলটির ভাড়া নিতেই ১০ লাখ টাকা খরচ হয়। লেডিস ক্লাবটি ছিলো সম্পূর্ণ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত। বসার চেয়ার ছিলো অনেক দামি। অথচ ইফতারি ৩০ টাকার। এতেই প্রমাণ হয়, শুধু রাজনীতি করার খাতিরেই বিএনপি নেতারা ৩০ টাকা ইফতারি করছেন।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, ৩০ টাকার ইফতারির মাধ্যমে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে স্মরণ করছি আমরা। তবে আমারা কিন্তু এখনো মখমলের বিছানায় শুই। এসিতে ঘুমাই। ভালো ভালো খাবার খাই। এছাড়া বিভিন্ন ইফতারেও মুখরোচক খাবার খাই। তবে যে ইফতারি গণমাধ্যমে প্রকাশ করবো, সেই ইফতারিটি ৩০ টাকায় করি। বিষয়টিকে অনেকেই লোক দেখানো মনে করতে পারেন তবে আমরা কিন্তু মন থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জন্যই এমনটি করছি।

সম্প্রতি সংবাদ