খালেদা জেলে থাকায় চামড়া শিল্পে ধ্বস -মির্জা ফখরুল

editor ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ breaking slider-top প্রধান খবর

আব্দুস সালাম রুবেল – ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ১৪ আগস্ট-২০১৯,বুধবার।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা যখন ক্ষমতায় ছিলাম তখন চামড়া কেনার জন্য ব্যাংক থেকে লোন দেয়া হত চামড়া ব্যবসায়ীদের এবং যারা লেজার ইন্ডাষ্ট্রিজের সঙ্গে জড়িত তাদের কাছে চামড়া পৌঁছে দেয়া হতো। এ ধরনের কোন কিছু না থাকার কারণে চামড়া শিল্পে বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়েছে।বুধবার সকালে ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়ি এলাকায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন।মির্জা ফখরুল বলেন, কোরবানি ঈদে প্রচুর পরিমাণ পশু কোরবানি করা হয়; পশুর চামড়াগুলো লেজার ইন্ডাষ্ট্রিজে বড় একটা ভুমিকা পালন করে। এসব চামড়া সারা বছর লেজার ইন্ডাষ্ট্রিজে সরবরাহ করা হয়। সেক্ষেত্রে পূর্ব পরিকল্পিত কোন নিয়ম-নীতি না থাকার কারণে চামড়া শিল্পে বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়েছে। চামড়া শিল্পে সিন্ডিকেট চলছে।

আপনারা লক্ষ্য করে দেখবেন অর্থনীতি, ব্যাংকের বিষয়গুলো যদি ফলো করেন। ব্যাংক সেক্টর ইতোমধ্যে দুর্নীতিতে ভরপুর। ব্যাংকিং সেক্টর সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত। ব্যাংকে মানুষ টাকা তুলতে গেলে টাকা পায়না; ব্যাংকগুলো টাকা দিতে পারেনা। ব্যাংকগুলো চলছে সম্পূর্ণভাবে অনিয়মের মধ্য দিয়ে।আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, মন্ত্রীরা ব্যাংকগুলো থেকে টাকা নিয়েছেন; আর পরিশোধ করেন না। গুটি কয়েক মানুষের সাথে রাজনৈতিক মানুষের যোগসাজেশে এ কাজগুলো করা হচ্ছে। অর্থাৎ এটাই হচ্ছে আ.লীগের শোষনের একটা বড় রাস্তা।বাংলাদেশের এ ভয়াবহ অবস্থা থেকে উত্তোরণের একটাই পথ খালেদা জিয়ার মুক্তি। খালেদা জিয়াকে দিয়েই এসব সমস্যার সমাধান হবে। খালেদা জিয়ার মুক্তি একমাত্র রাস্তা।
এসময় জেলা বিএনপির সহ – সভাপতি,আবু তাহের দুলাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান মাহমুদ মো:মামুন, দপ্তর সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তারিক আদনান, থানা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি

সম্প্রতি সংবাদ