ঘিওর সিংজুরী কালিগঙ্গা নদীতে ৪৮ বছরেও সেতু হয়নি২০ গ্রামের হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ চরমে

editor ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

রামপ্রসাদ সরকার দীপু  ঘিওর(মানিকগঞ্জ):২৩ অক্টোবর-২০১৯,বুধবার।
মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার সিংজুরি -বালিয়াবাধা কালিগঙ্গা নদীর উপরে স্বাধীনতার ৪৮টি বছর অতিবাহিত হবার পরেও ব্রিজ নির্মান করা হয়নি। বাশেঁর সাকোর উপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রায় ২০/২২টি গ্রামের হাজার হাজার জনগনকে যাতায়াতের ক্ষেত্রে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
সরেজমিন পরিদর্শন করে দেখা গেছে, বর্ষা মৌসুমে এ সমস্ত এলাকার জনগনের নৌকা একমাত্র ভরসা। বড় ইঞ্চিনচালিত নৌকায় করে এই কালিগঙ্গা নদী পারি দিয়ে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করতে হয়। সিংজুরি বাজার থেকে মাত্র ১ কিঃমিঃ আরিয়ারদহ- সিংজুরি কালিগঙ্গা নদী। সবুজ ছায়া ঘেরা এ নদীর কোল ঘেষে অসংখ্য বাড়ি, ঘড়, স্কুলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। কালিগঙ্গা একেবেকে গিয়ে মিশেছে ধলেশ^রী নদীতে। দরিদ্র জনগোষ্ঠি অধিষ্ঠিত এ অঞ্চলের মানুষের জীবন জীবিকার প্রয়োজনে বর্ষা মৌসুমে একমাত্র ভরসাস্থল নৌকা। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন বিল্লালাই, গোবিন্দ্রপুর, বেড়াডাঙ্গা,দেবতাঘড়ি, চরশিমুলিয়া, চরমির্জাপুর, মির্জাপুর, বৈলতলা, ব্রাম্মনগাও, কিষ্টনগর,শিমুলিয়া, শিহরপুর, নাটুয়াবাড়ি, সাটুরিয়া এবং দৌলতপুর উপজেলার হাজার হাজার লোকজনকে সরাসরি যাতায়াত করতে পারেনা।এমনকি স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী, মোটরসাইকেল, অটোরিকসা, অটোবাইক,ভ্যানবাইক,ভ্যান গাড়িসহ বিভিন্ন ধরনের ধরনের যানবাহন চলাচল করতে পারেনা। ব্যবসায়ীদের পণ্যসামগ্রী নৌপথে আনা নেওয়ার কারনে অধিকভাড়া ব্যয় করতে হচ্ছে। সারা বছর গ্রামবাসীদের উদ্যোগে বাঁশের সাকো নির্মান করে যাতায়াতের ব্যবস্থা করে থাকেন। গর্ভবতী মা এবং জরুরী কেউ অসুস্থ হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কিংবা ঢাকা নিতে হলে তাদের কষ্টের সিমা থাকেনা। এ দিকে কাশেমপুর ব্রিজের দু’পাশের রাস্তাটি দীর্ঘদিন যাবত ইট সোলিং থাকার দরুন চলাচলে খুবই অসুবিধা হচ্ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে ইট উঠে খানাখন্ডের সৃষ্টি হয়েছে। ১৯৯৬ সালের প্রথম দিকে ঘিওর থেকে সিংজুরি বাজার পর্যন্ত সড়ক পাকা করন করা হয়। দীর্ঘ দিনেও রাস্তাটি সংস্কার করা হয়নি।
সিংজুরি গ্রামের দুলাল, হাবিব, শরীফসহ অনেকেই জানান, জরুরি ভিত্তিত্বে আমাদের এখানে ব্রিজ নির্মান করা প্রয়োজন। তবে আমাদের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ এ এম নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের সার্বিক উদ্যোগে আমাদের বৈকন্ঠপুরে-চকমির্জাপুর সিংজুরিতে বিশাল ব্রিজের নির্মানের কাজ শুরু হয়েছে। এই ২টি ব্রিজ নির্মান করা হলে এই অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষের উপকার হবে। ঢাকা এবং মানিকগঞ্জ যাতায়াতের অনেক সুবিধা হবে।
উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সাজ্জাকুর রহমান জানান, আমি কালিগঙ্গা নদীর পরিদর্শন করেছি। গত বছরে সোয়েল সেষ্ট, সার্ভেকরন এবং সম্ভব্যতা যাচাই করা হয়ে গেছে। একনেকে পাশ হলেই ট্রেন্ডার হবে। আশা করছি দ্রুত কাজটি শুরু হয়ে যাবে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান। এলাকার ভুক্তভোগী লোকজন দ্রুত ব্রিজটি নির্মানের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

সম্প্রতি সংবাদ