ব্রেকিং নিউজ

ঈশ্বরগঞ্জে অপুষ্টি খাদ্যাভাবে শিশুর মৃত্যু

editor ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

  হাবিবুর রহমান, ঈশ্বরগঞ্জ(ময়মনসিংহ):১২ মে-২০২০,মঙ্গলবার।
প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে খাদ্য সামগ্রী ও শিশু খাদ্য বিতরণ করা হলেও ময়মনসিংহের ঈশ^রগঞ্জে খাদ্যের অভাবে ৩মাস বয়সের অবুঝ শিশু মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের এনায়েত নগর গ্রামে। সোমবার ওই বাড়ি গিয়ে তার পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় এলাকাবাসীদের সাথে কথা বলে নিশ্চিত হলেও জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কেউ জানেনা এ খবর।
জানা যায়, করোনা কালীন সময়ে অসহায় এনায়েতনগর গ্রামের পাঞ্জু মিয়ার পরিবারের ভাগ্যে জোটেনি কোন খাদ্যসামগ্রী। হতদরিদ্র পাঞ্জু মিয়া বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে র্দূঘটনায় অসুস্থ হয়েছে প্রায় ২মাস। সে কোন কাজ কর্ম না করতে পারায় উপার্জন বন্ধ। স্ত্রী হোসনেআরাও ৬ মাস পূর্বে তার শরীর আগুনে পুড়ে যাওয়ায় আগের মতো মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কাজ করতে পারছে না অসুস্থতার জন্য। এরই মধ্যে তাদের ঘরে জন্ম হয় এক শিশু। খাদ্যাভাবে মায়ের বুকের দুধ কম থাকায় ভারতি খাবার দিতে হয় শিশুকে। যাদের ‘নুন আনতে পান্ত পুড়ায়’ তাদের পক্ষে শিশু খাদ্য সংগ্রহ করা কঠিন। তারপরও কোন ক্রমে চালিয়ে যাচ্ছিলো প্রায় ৩মাস। কিন্তু অপুষ্টি ও খাদ্যাভাবে গত বৃহস্পতিবার মারা যায় শিশুটি। বর্তমানে সে তিন সন্তান নিয়ে অনাহারে দিন যাপন করছেন। ইতোমধ্যে উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে খাদ্র সামগ্রী ও শিশু খাদ্য বিতরণ করা হলেও পাঞ্জু মিয়ার কপালে জোটেনি কোন কিছু।
পাঞ্জু মিয়ার স্ত্রী হোসনে আরা কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, রান্না করার মতো তার ঘরে এক মোটো চালও নেই। পাশের বাড়ি থেকে দুই দিন আগে ২ কেজি চাল এনে ছিলেন তাও শেষ। তিনি কজ্জ করা টাকা দিয়ে ২ কেজি আটা এনেছেন। তিনি আরো জানান, সরকারি সাহায্য সহযোগিতার জন্য বার বার মেম্বারের কাছে গিয়েও পাননি কোন সাহায্য।
সরিষা ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়টি আমার জানা নেই, স্থানীয় ইউপি সদস্য ওই পরিবারকে কোন সহাযতা করেনি এটা কেউ আমাকে জানায়ও নি। আমি দ্রুত তার বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌচানোর ব্যবস্থা করছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন বলেন, বিষয়টি জানারপর ওই বাড়িতে গিয়েছি, এবং ২হাজার টাকা, খাদ্যসামগ্রী দিয়ে আসছি। পরিবারটি অত্যান্ত গরীব। ##

 

সম্প্রতি সংবাদ