ব্রেকিং নিউজ

নওগাঁর রাণীনগরে পুকুড় পাড়ের তারের সঙ্গে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে ২ জন ধানকাটা শ্রমিক নিহত ॥ আহত-১

editor ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ breaking সারাদেশ

  একেএম কামাল উদ্দিন টগর, নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ১৮ মে-২০২০,রবিবার্।

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার বিশিয়া গ্রামে পুকুরের চারদিকে থাকা অবৈধ গুনার তারের সঙ্গে বিদ্যুৎ সংযোগে ২জন নিহত ও ১জন গুরুত্বর আহত হয়েছে। সোমবার সকালে ওই গ্রামের অভয়ের পুকুরের পাড়ে এই ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন বিশিয়া গ্রামের মৃত- আবুল প্রামানিকের ছেলে ধান কাটা শ্রমিক জাহিদুল ইসলাম (৩০) ও মৃত খালেকের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩১)। এছাড়াও আনোয়ার হোসেনের ছোট ভাই হোসেন আলী (২৭) গুরুত্বর আহত হয়ে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, বিশিয়া গ্রামে অভয়ের পুকুরের মাছ রক্ষার্থে পুকুর পাড়ের চারদিকে প্রতিদিন রাতেই তার ছেলেরা অবৈধভাবে গুনার তারে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে রাখতো। ওইদিন সকাল অনুমান ৬টার দিকে ধান কাটা শ্রমিক জাহিদুল, আনোয়ার ও হোসেন আলী মৃত-অভয়ের ছেলে রওসুনি মাষ্টার, অধির ও সুকুমারের জমির ধান কাটার জন্য পুকুর পাড় দিয়ে মাঠে যাচ্ছিলো। তখন সবার অজান্তে প্রথমে জাহিদুল ওই তারের সঙ্গে জড়িয়ে যায় তাকে বাঁচানোর জন্য আনোয়ার এগিয়ে গেলে সেও বিদ্যুতের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন একই সঙ্গে হোসেন আলীও তাদের বাঁচানোর জন্য এগিয়ে গেলে সেও বিদ্যুতের সঙ্গে পৃষ্ঠ হন। এসময় বিদ্যুৎ পৃষ্ঠ হয়ে সঙ্গে সঙ্গেই জাহিদুল ও আনোয়ার ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং গুরুত্বর আহত অবস্থায় হোসেন আলীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনার পরেই অভয়ের ছেলেরা তারগুলো লুকিয়ে ফেলেন। এই ঘটনার পর থেকে নিহতদের পরিবারে শোকের মাতম চলছে। এছাড়াও গ্রামবাসীরা পুকুরের পাড়ে অবৈধভাবে তারে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে রাখা এবং দুইজন শ্রমিকের মৃত্যুর সঠিক বিচার দাবীতে বিক্ষোভ করেন।
রাণীনগর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম সাইদি সবুজ খাঁন বলেন, এই ঘটনার পরেই অভয়ের ছেলেদের বিদ্যুতের মিটার জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহুরুল হক বলেন, খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ফাড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার সহকারী উপ-পরিদর্শক হাফিজ কে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#

সম্প্রতি সংবাদ