ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক দিলনেওয়াজ খানেরধারাবাহিক ত্রাণ কার্যক্রম ঈদের পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত অব্যাহত

editor ২৮শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি ॥২৪ মে-২০২০,রবিবার।

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক ও সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি দিলনেওয়াজ খানের ধারাবাহিক ত্রাণ তৎপরতা ঈদের পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। তার গৃহিত নানা উদ্যোগের অংশ হিসেবে বর্তমানে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে দরিদ্র জনগোষ্ঠির মধ্যে ঈদ উপহার তথা ঈদের দিনের প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী পোলাওয়ের চাল, লাচ্ছা সেমাই, দুধ, চিনি, তেলসহ পাঞ্জাবী, শার্ট, লুঙ্গি, শাড়ীসহ শিশুদের জামা প্রদান কার্যক্রম চলছে। ২৪ মে দুপুরে শহরের মুন্সিপাড়ায় সমাপনী দিনের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মোখছেদুল মোমিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উদ্যোক্তা মোঃ দিলনেওয়াজ খান, সৈয়দপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ, উর্দূভাষী ক্যাম্প উন্নয়ন কমিটির আহ্বায়ক ও উর্দূ কবি মাজিদ ইকবাল, যুব নেতা রাজিব রায় চৌধুরী প্রমুখ।
করোনা পরিস্থিতি দেখা দেয়ার পর থেকেই তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে সচেতনতামূলক কার্যক্রমের পাশাপাশি জনকল্যানমূলক ও মানবিক সহায়তামূলক নানা কার্যক্রম চলমান। এর মধ্যে পাড়া মহল্লায় হ্যান্ড সেনিটাইজারসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, শহরের প্রবেশমুখে পরিবহন জীবানুমুক্ত করণে সেনেটাইজার ক্যাম্প স্থাপন, সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রবেশপথে স্বয়ংক্রিয় সেনিটাইজার প্যানেল স্থাপন, রাস্তাসমুহে জীবানুনাশাক মিশ্রিত পানি ছিটানো, মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর মাঝে মুরগী বিতরণ, ক্যাম্পসমুহে রান্না করা খাবার ও সাবান, মাস্ক, হ্যান্ড সেনেটাইজার, গ্লোবস, শিশুদের পোশাক বিতরণ। এসব কার্যক্রম একান্তভাবে নিজ অর্থায়নে দীর্ঘ প্রায় ২ মাস যাবত চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মোঃ দিল নেওয়াজ খান জানান, মূলতঃ আমরা জনগণের সেবার মানসিকতা নিয়েই রাজনীতি করি। তাই জনগণের সমস্যার সময় তাদের সমস্যা দূর করতে আমাদের সামর্থানুযায়ী সহযোগিতা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। তাছাড়া বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রৗ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামীলীগসহ সকল অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন যেন করোনা ভাইরাসের প্রকোপে সৃষ্ট এই বৈশ্বিক মহামারির সময় কর্মহীন, অসহায়. দরিদ্র ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াই। তার নির্দেশ মোতাবেক আমি আমার পক্ষ থেকে উপরোক্ত কার্যক্রমগুলো পরিচালনা করেছি। এতে দেখেছি অসহায় মানুষগুলো সামান্য সহযোগিতা পেয়েই কতটা আনন্দিত হয়েছে এবং দ্রুত আপন করে নিয়েছে। আমরা শুধু মানুষের ভালবাসা ও দোয়া চাই। যেন তাদের একজন হয়ে আজীবন তাদের বিপদে আপদে সহযোগিতা করে যেতে পারি। এটাই আমার মরহুম বড় ভাই বিশিষ্ট শিল্পপতি ও আমেরিকা প্রবাসী পারভেজ খানের কাছ থেকে পাওয়া শিক্ষা। এ শিক্ষার আলোকে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুযায়ী জনরাজনীতি করাই আমার পরিকল্পনা তথা জীবনের উদ্দেশ্য।

সম্প্রতি সংবাদ