ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুরে ঈদের দিন ৮ টি বাড়িরসর্বস্ব  আগুনে পুড়ে ছাই 

editor ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধিঃ৩০২০২০,শনিবার।
নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের মিস্ত্রিপাড়া বটগাছতলা এলাকায় আগুনে পুড়ে ৮ বাড়ির সর্বস্ব ছাই হয়েছে। ২৫ মে সোমবার ঈদুল ফিতরের দিন বেলা ৩ টা ১৫ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটেছে। এতে ১০টি পরিবারের প্রায় ৩০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ক্ষতি হয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মিস্ত্রিপাড়া বটগাছতলায় রাস্তার পূর্ব পাশের রেলওয়ের পরিত্যক্ত কোয়ার্টারের মধ্যে ৮ টি কোয়ার্টার সম্পূর্ণভাবে পুড়ে গেছে। এই কোয়াটারগুলোতে বসবাসকারী ১০ টি পরিবারের আসবাবপত্র, নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, ইলেকট্রনিক সামগ্রীসহ সব ধরনের মালামালের সাথে ঘরের চালের টিন ও সিলিং পুড়ে একাকার হয়ে ধ্বংসস্তুপে পরিনত হয়েছে।
এলাকাবাসীরা জানান, গতকাল রবিবার রাতে ঝড় হওয়ার পর থেকে এলাকায় বিদ্যুৎ নেই। এ অবস্থাতেই ঈদ পালন করছি। বেলা ৩ টা ১৫ মিনিটের দিকে বিদ্যুৎ আসার কিছুক্ষণ পরই হঠাৎ ধোয়ার কুন্ডলী ও দাউ দাউ করা আগুন দেখতে পায় রাস্তার পাশে বটগাছ তলায় বসা লোকজন। তাদের ডাকাডাকিতে এলাকাবাসী ছুটে আসতে না আসতেই আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এতে মুহুর্তে আগুনের লেলিহান শিখায় চালের টিনগুলোর বাঁশ ও কাঠ শব্দ করে ফুটতে থাকে। এসময় খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত হয়। কিন্তু প্রয়োজনীয় পানির অভাবে আগুন নেভাতে চরম বেগ পোতে হয় তাদের। প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টার পর এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে দমকল বাহিনী। এতে আগুন আশেপাশে না ছড়ালেও ইতোমধ্যে ৮টি বাড়ির ১০টি পরিবারের সব শেষ হয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থরা হলো বশির উদ্দিন, শরীফ, সুফিয়া খাতুন, রনি, গনেশ চন্দ্র, সাবানা, মিসু, কালাম।
এলাকাবাসী অভিযোগ করেন অগ্নিকাণ্ডের সময় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যখন পানি পাচ্ছিলনা তখন এলাকার পানির উত্স রেলওয়ের ওয়াটার হাউস দখল করে বাড়ি নির্মান বানিয়ে বসবাসকারী সাবেক সেনা সদস্য পারভেজ তার বাড়ির ভিতর থেকে পানি নিতে বাধা দিয়েছে। একারনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান বেড়েছে। এ অভিযোগেে উত্তেজিত জনতা আগুন নেভানোর পর পারভেজের বাড়িতে হামলা করে ভাঙ্চুর করেছে।
এসময় সৈয়দপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র জিয়াউল হক, স্থানীয় ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারিক আজিজ, জেলা ছাত্রদল আহ্বায়ক রেজওয়ানুল হক পাপ্পু উদ্ধারকাজ পরিচালনার পাশাপাশি লোকজনকে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি থেকে বিরত থাকার জন্য উপস্থিত বক্তব্য রাখেন।
প্যালেন মেয়র বলেন, পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আমজাদ হোসেন সরকারের নির্দেশে খবর পাওয়ামাত্রই আমরা আপনাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। পৌর পরিষদের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।
খবর পেয়ে সৈয়দপুর থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং অগ্নিকাণ্ডের প্রাথমিক তদন্ত করেছে। অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত সম্পর্কে পুলিশ বা ফায়ার সার্ভিস কোন তথ্য নিশ্চিত হতে পারেনি। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে। (ছবি আছে)

সম্প্রতি সংবাদ