ব্রেকিং নিউজ

আবারো তিন দিনের রিমান্ডে ফরিদপুরের বহিস্কৃত আ’লীগ নেতা বরকত-রুবেল

editor ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

কামরুল হাসান জুয়েল,  ফরিদপুর প্রতিনিধি:২৫ জুন-২০২০,বৃহস্পতিবার।

ফরিদপুরে দুটি পৃথক মামলায় শহর আওয়ামী লীগের অব্যাহতিপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন ওরফে বরকত ও তার ভাই ফরিদপুর প্রেসক্লাবের অব্যাহতিপ্রাপ্ত সভাপতি ইমতিয়াজ হাসান ওরফে রুবেলের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ রবিবার বিকেলে ফরিদপুরের এক নম্বর আমলী আদালতের বিচারিক হাকিম মোহাম্মাদ ফারুক হোসাইন রিমান্ড আবেদন শুনানী শেষে দুইভাইকে তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।গত বৃহস্পতিবার ওই দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা একটি মামলায় সাজ্জাদ ও ইমতিয়াজকে চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ওই রিমান্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের আদালতে হাজির করে দুটি মামলায় পৃথম ভাবে দুই জনের ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানায় পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।এ রিমান্ড শুনানীর আগে সাজ্জাদ হোসেন বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা মামলায় অপরাধ স্বীকার করে একই আদালতের কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তবে ইমতিয়াজ হাসান রুবেল স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেননি।সাজ্জাদ হোসেনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে সদর উপজেলা আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলমের উপর হামলা ও চাঁদাবাজীর মামলায়। অপরদিকে ইমতিয়াজ হাসানের রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে তার সহযোগী রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে দায়ের করা অস্ত্র মামলায়। ওই মামলার বাদী ফরিদপুর গোয়েন্দা বিভাগের উপ-পরিদর্শক মো. জব্বার। প্রসঙ্গত, গত ৭ জুন রাতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহার বাড়িতে হামলার মামলার আসামী হিসেবে শহরের বদরপুরসহ বিভিন্ন মহল্লায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ বরকত, রুবেল ও রেজাউল করিম, কাউন্সিলর মামুনসহ মোট নয়জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অস্ত্র, মাদক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে তিনটি মামলা হয়। পরবর্তিতে সদর উপজেলা আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম চাঁদাবাজী ও তার উপর হামলার অভিযোগে আরেকটি মামলা করেন ফরিদপুর কোতয়ালী থানায়। এ মামলায় আসামি করা হয় সাজ্জাদ ও ইমতিয়াজকে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে সাজ্জাদ হোসেন বরকত ও রুবেলকে আদালতে হাজির করে দুটি পৃথক মামলায় ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানায় পুলিশ। শুনানী শেষে আদালত তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। প্রসঙ্গত গত ১৬ মে রাতে জেলা আ.লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহার বাড়িতে দুই দফা হামলার ঘটনা ঘটে। সুবল সাহার বাড়ি শহরের গোয়ালচামট মহল্লার মোল্লা বাড়ি সড়কে অবস্থিত। এ ঘটনায় গত ১৮ মে সুবল সাহা অজ্ঞাতনামা ব্যাক্তিদের আসামি করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

সম্প্রতি সংবাদ