ব্রেকিং নিউজ

গোয়ালন্দে আরো ৩ জন করোনা পজিটিভ মোট সনাক্ত ৪০

editor ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

আবুল হোসেন গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী ) প্রতিনিধি ঃ২৬ জুন-২০২০,শুক্রবার।

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে নতুন করে আরো ৩ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিকৃত এক ব্যক্তির তৃতীয় বারের মতো পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এ নিয়ে গোয়ালন্দ উপজেলা মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৪০ জন এ। গত ১৬ থেকে ২১ জুন নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্য থেকে ২২ জনের রিপোর্ট আজ বৃহস্পতিবার হাতে এসে পৌছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হবে।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসিটি ও করোনা ফোকাল চিকিৎসা কর্মকর্তা সামিউল হুদা বৃহস্পতিবার জানান, এ পর্যন্ত মোট ৪৬৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এরমধ্যে ৪৩৯ জনের নমুনার রিপোর্ট হাতে এসে পৌছেছে। এখনো ২৫ জনের রিপোর্ট এসে পৌছেনি। গত ১৬ থেকে ২১ জন পাঠানো নমুনার রির্পোট দেরি করে বুধবার রাতে আসে। এরমধ্যে নতুন করে ৩ জনের পজিটিভ রিপোর্ট হাতে এসে পৌছলে তাদের বিস্তারিত কোন পরিচয় ছিলনা। পরিচয় বিস্তারিত পাওয়ার পর আজ বৃহস্পতিবার প্রকাশ করা হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ২২ জন সুস্থ্য হয়ে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করছে। এ ছাড়া আক্রান্ত হওয়া ১৭ জনের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২ জন। হোম আইসোলেশনে আছেন ১৬ জন এবং হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ৮৫ জন।
তিনি আরো বলেন, গতকাল বুধবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে একজন করোনা রোগীকে ছুটি দিয়েছি এবং তাঁকে বাড়িতে আইসোলেশনে থাকার নির্দেশ দিয়েছি। তাঁর প্রথম ফলো-আপ রিপোর্ট নেগেটিভ আসায়, শারিরীকভাবে সুস্থ্যবোধ করায় এবং লক্ষণমুক্ত থাকায় আমরা এই সিদ্ধান্ত নেই। এ ছাড়া হাসপাতালে ভর্তিকৃত আরেক করোনা রোগীর চিত্র একই থাকার কারণে আমরা তাকেও ছুটি দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ বলেন, নতুন করোন পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হওয়া ৩ জনের মধ্যে একজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী ও উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের সুলতান উদ্দিন (৪৫), একই গ্রামের কৃষক মো. রিমন শেখ (৩০), স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর টেকনিক্যাল এসিসটেন্ট আমিরুল ইসলাম রনির স্ত্রী (২৫)। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এ ভর্তি আলমাস মোল্লার (৬৫) তৃতীয়বারের মতো করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এদেরকে হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হবে।