ব্রেকিং নিউজ

বাড়ছে পদ্মা-যমুনার পানি, মানিকগঞ্জে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

editor ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ breaking সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:১৫ জুলাই-২০২০,বুধবার।
মানিকগঞ্জে যমুনা ও পদ্মার পানি বাড়ায় হরিরামপুর ও দৌলতপুর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক (গেজ রিডার) ফারুক আহমেদ আজ বুধবার বিকেলে বলেন, দেশের উত্তরাঞ্চলে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এ কারণে মানিকগঞ্জেও নদ-নদীতে পানি বাড়ছে।

তিনি জানান, গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় শিবালয়ের আরিচা পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার পাঁচ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। কিন্তু গত ২১ ঘণ্টায় ২৭ সেন্টিমিটার পানি বেড়ে আজ বিকেল ৩টায় তা বিপৎসীমার ৩২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

হরিরামপুর উপজেলায় পদ্মা নদীতেও পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। শিবালয়ের পাটুরিয়া এলাকায় যমুনা নদীর সঙ্গে এই নদীর সংযোগ রয়েছে। এছাড়া, ধলেশ্বরী, কালীগঙ্গা, ইছামতিসহ জেলার অভ্যন্তরীণ সব নদীতেই পানি বাড়ছে।

দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম জানান, যমুনায় পানি বাড়ার ফলে উপজেলার বাঁচামারা, বাঘুটিয়া, চরকাটারী ও জিয়নপুর ইউনিয়নের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। অনেক বসতভিটায় পানি ঢুকেছে।

হরিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেওয়ান সাইদুর রহমান বলেন, তার উপজেলার রামকৃষ্ণপুর, হারুকান্দি, লেছড়াগঞ্জ, আজিমনগর, ধূলসূড়া ও কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া কয়েকটি এলাকায় পানির স্রোতে কাঁচা রাস্তা ধসে গেছে।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা রূপক গাজী জানান ওই ইউনিয়নের বালিকান্দি চরের ৮০টি পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এছাড়া, বৌদ্ধকান্দি, সূত্রকান্দি ও কুশিয়ার এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস বলেন, দৌলতপুর উপজেলায় দুইশ পরিবার পানিবন্দি অবস্থায় আছে এবং ৫০টি পরিবার সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে উঠেছেন। অন্য কোন উপজেলায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে এমন খবর এখনও তার কাছে আসেনি বলে জানান তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ