ব্রেকিং নিউজ

মানিকগঞ্জ বাসীর টানে বেতনের টাকায় বন্যার্তদের ত্রাণ দিচ্ছেন অতিরিক্ত আইজিপি

editor ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: ২৬ জুলাই ২০২০,রবিবার।

করোনা দুর্যোগের মধ্যে আকস্মিক বন্যায় মহাবিপদে ফেলেছে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার চরাঞ্চলের বানবাসি মানুষদের। হঠাৎ করেই পদ্মা-যমুনা ফুঁসে ওঠায় বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে জেলার ৪টি উপজেলা। যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। সবচেয়ে কষ্টে আছে চরাঞ্চলের মানুষ। বাড়িঘরে হাঁটু ও কোমড় পানি থাকায় পরিবার পরিজন ও গবাদি পশু নিয়ে তারা পড়েছেন দিশেহারা ও চরম দুর্ভোগের শিকার । চরাঞ্চলের মানুষের রান্না করার লাকড়ি ও বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

এ অবস্থায়   মানিকগঞ্জ বাসীর টানে এক মাসের বেতনের টাকায় বন্যার্তদের ত্রাণ দিচ্ছেন অতিরিক্ত আইজিপি (মিরপুর পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর) শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান-বিপিএম পিপিএম।

আগামীকাল সোমবার তার এ ত্রাণ বিতরণ করা হবে বন্যাদুর্গত মানিকগঞ্জের হরিরামপুর ও দৌলতপুর উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চলে। মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম দুই শতাধিক বন্যার্তের মাঝে এসব ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করবেন। ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- ৪ কেজি চিড়া, ১ কেজি মুড়ি, ১ কেজি গুড়, ১ কেজি বিস্কুট ও ২৫ পিস পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট।

ত্রাণ বিতরণ করার বিষয়ে জানতে চাইলে শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান জানান, করোনা দুর্যোগের মধ্যে বন্যা মানুষের মরার ওপর খাঁড়ার ঘায়ের মতো। কয়েক দিন ধরে টেলিভিশন ও পত্রিকায় বানভাসি মানুষের নানা দুঃখ দুর্দশার খবর দেখছি। সরকার তাদের পাশে আছে। তারপরও দুর্গতদের অবস্থা বিবেচনা করেই নিজের এক মাসের বেতনের টাকা তাদের জন্য উৎসর্গ করলাম।

তিনি বলেন, বেতনের টাকা বন্যার্তদের জন্য কিছুই না। তারপরও তাদের পাশে দাঁড়াতে পেরে ভালো লাগছে। মানবতার সেবায় সবারই এগিয়ে আসা উচিত।

এক সময় মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করা পুলিশের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা  বলেন, মানিকগঞ্জের প্রতিটি আনাচে কানাচে তার চেনা। এ বন্যায়ও চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন জেলার মানুষ। মানিকগঞ্জের মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকেই তিনি সেখানে ত্রাণ বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসানের এ মহতী উদ্যোগের প্রশংসা করেন মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীমসহ গণ্যমান্য ব্যক্তি।

সম্প্রতি সংবাদ