ব্রেকিং নিউজ

সংবাদ সম্মেলন করে দলের কাছে মেয়র পদে মনোনয়ন চাইলেন সুদেব সাহা

editor ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:১৬ সেপ্টেম্বর-২০২০,বুধবার।
আগামী পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করে নিজেকে ক্লিন ইমেজের প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা দিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মানিকগঞ্জ পৌরসভার দুই বারের ভারপ্রাপ্ত মেয়র সুদেব কুমার সাহা। বুধবার মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে সুদেব সাহা বলেন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্লিন ইমেজের প্রার্থী খুঁজছেন বলেই প্রার্থী হয়েছি। দল মনোনয়ন দিলে সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন আর নিজের ইমেজ দিয়ে হারানো নৌকা ফিরিয়ে আনা সম্ভব।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক খোরশেদ আলম চৌধুরী লাভলু, জেলা বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক বাসুদেব সাহা, জেলা কুষকলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান নজরুল, জেলা প‚জা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা পুলক ভৌমিক, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি খলিলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সদস্য সালাউদ্দিন আহাম্মেদ উজ্জল ও মফিজ উদ্দিন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সুদেব সাহা বলেন, তিনি ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে যুক্ত রয়েছেন। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও জেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মানিকগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। ইতিপ‚র্বে তিন মেয়াদে মানিকগঞ্জ জেলা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রীজের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া, মানিকগঞ্জ পৌরসভার দুইবার কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র এবং চার বছর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন। এসব ক্ষেত্রে তিনি সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। দলের সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে তরুণ ও ক্লিন ইমেজের প্রার্থী খুঁজছেন। তরুণ প্রজন্মের প্রতিনিধি ও ক্লিন ইমেজের দাবীদার হিসেবে তিনি আগামী নির্বাচনে আমি মেয়র পদে দলের মনোনয়ন প্রার্থনা করছেন। তিনি আশা করেন জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে ম‚ল্যায়ন করবেন। তিনিও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হয়ে জনগনের কাংখিত উন্নয়ন নিশ্চিত করবেন বলে জানান।
সুদেব কুমার সাহা আরও বলেন, তিনি অতীতে মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে অল্পভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন। একটি কুচক্রী মহলের কারণেই তাঁকে ওই নির্বাচনে হারিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, এখন সাংগঠনিকভাবে দল অনেক শক্তিশালী। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও অন্যান্য সংসদ সদস্যের মাধ্যমে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। একারণে, দল যাকেই নৌকা প্রতীক দিবেন, তিনিই জিয়ী হবেন। অনেকেই দলের মনোনয়ন চাচ্ছেন। দল যাকে যোগ্য মনে করবেন, তাঁকেই মনোনয়ন দিবেন। কাজেই দলীয় প্রার্থী যেই হোক, তাঁকে তথা নৌকা প্রতীকের বিজয়ের লক্ষে সম্মিলিতভাবে কাজ করবেন বলে জানান তিনি।
তিনি আরো জানান বঙ্গবন্ধুকন্যা, প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন-২০১৪ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশের প্রখ্যাত নগর ও পরিকল্পনাবিদদের দিকনির্দেশণা অনুযায়ী মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার উন্নয়নে একটি মাষ্টার প্ল্যান তৈরী করে তা দ্রæত বাস্তবায়ন করবেন বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে উলে­খ করেন। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরিকল্পনা অনুযায়ী পৌর এলাকার শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীদের জন্য আইসিটি পার্ক, মানবিক-বাসযোগ্য-সবুজনগরী গড়ে তোলা, প্রবীণ ও নবীনদের নিয়ে ‘মানিকগঞ্জ ক্লাব’ নামে একটি সামজিক সংগঠন গড়ে তোলা, শহরের ভাসমান ব্যবসায়ীদের জন্য পরিকল্পিতভাবে স্থায়ী ব্যবসা কেন্দ্র গড়ে তোলা, শহরের ময়লা-আবর্জনা দ্রæত অপসারন করে তা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে বায়োগ্যাস ও জৈব সার প্রস্তুত করে বিনাম‚ল্যে নাগরিকদের মাঝে বিতরণ করা, জেলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে একটি জাদুঘর স্থাপন করা, শহরের যানজট নিরসন করা, খেলার মাঠ তৈরী, শহরের পাশ দিয়ে প্রবাহিত কালীগঙ্গা নদীকে ঘিরে পরিবেশ বান্ধন উপ-শহর গড়ে তোলা, মাদকমুক্ত সমাজ গড়াসহ ২৪-দফা কাজের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ