ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুরে  অগ্নিকাণ্ডে ১৬ টি বাড়ির সর্বস্ব পুড়ে ছারখার

editor ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ   ০৯ অক্টোবর-২০২০
নীলফামারীর সৈয়দপুরের পল্লীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ১৬ টি পরিবারের ১৬  টি বাড়ির সর্বস্ব পুরে ছারখার হয়েছে। গত ৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের উত্তর সোনাখুলী বালিকান্তপাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় অর্ধ শতাধিক মানুষ মাথাগোঁজার ঠাই হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছে। সর্বস্ব পুড়ে ছাই হওয়ায় অনেকে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে।
জানা যায়, ওই এলাকার ওলেকান্ত রায়ের ছেলে সুবাস রায়ের বাড়ির বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আশেপাশের বাড়ীতে। এতে মুহূর্তেই আগুনের লেলিহান শিখায় আচ্ছন্ন হয়ে যায় ১৬ টি বাড়ি। এলাকাবাসী আগুন নেভানোর চেষ্টাকালে খবর পেয়ে সৈয়দপুর, নীলফামারী ও উত্তরা ইপিজেড এর ফায়ার সার্ভিসের ৩ টি ইউনিট উপস্থিত হয়। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ২ ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এর মধ্যেই ১৬ টি বাড়ির সর্বস্ব পুড়ে যায়। এতে আসবাবপত্র, স্বর্নলংকার, গবাদিপশু, ইলেকট্রনিকস, ধান- চাল, সেলাইমেশিন, মোটরসাইকেল, বাই সাইকেল, ভ্যান, পোশাক, শিক্ষার্থীদের বইপত্র ও সার্টিফিকেটসহ নগদ ৫ লাখ টাকা ভস্মীভূত হয়।
সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার খুরশিদ আলম জানান, ৩ টি ইউনিট ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ২ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। এতে আনুমানিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ২৫ লাখ টাকা।
আগুনে সর্বস্ব হারানোদের মধ্যে সুবাস রায় বলেন,  বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটেে আগুনে পুড়ে আমরা ১৬ টি পরিবার নিস্ব হয়েছি। পড়নের কাপড় ছাড়া আমরা কিছুই রক্ষা করতে পারি নাই। রাত থেকেই আমরা খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। কি খাবো, কিভাবে চলবো কোন কিছুই বুঝে উঠতে পারছিনা।
নিশা রানী নামে অপর এক নারী জানান, মেয়ের বিয়ে দেয়া হয়েছে। তার বিদায়ের জন্য সংগ্রহ করা ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা সহ স্বর্নলংকার পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এখন কি করে যে এ ক্ষতি পূরণ করবো। দিশেহারা হয়ে পড়েছি।
ক্ষতিগ্রস্ত অন্যান্যরা হলো অধির, জগনাথ, ব্রজন,  বিধান, গৌতম, নবানু, সিমুর, অমল, পালানু, বিমল, শান্তি, পন্ডিত, রন্জিত, সুরজিত, সজেন, রতন।
বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আল হেলাল চৌধুরী আগুনের সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক উপস্থিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাবার বিতরনসহ নগদ ৫ হাজার করে টাকা সহযোগিতা করেছেন। তিনি জানান, এটা ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা। পরিষদের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।
সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোখছেদুল মোমিন জানান, অগ্নিকাণ্ডের শিকার পরিবারগুলো নিম্নবিত্ত। তাছাড়া আগুনে তাদের সবকিছু ধ্বংস হয়ে গেছে। তারা এখন একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হবে এবং তাদেরকে ঘর করার জন্য টিন ও নগদ অর্থ দিয়ে পূনর্বাসনের সহায়তা প্রদান করা হবে।

সম্প্রতি সংবাদ