দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ডাকাতির ঘটনায় আরো একজন গ্রেপ্তার

editor ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শরিফুল ইসলাম, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি:২২ অক্টোবর-২০২০

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ আজ বৃহস্পতিবার ভোরে দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট থেকে মো. রবিন খান (২৮) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে। সে উপজেলার উত্তর দৌলতদিয়া শামসু মাষ্টার পাড়ার আলাল খান এর ছেলে। এর আগে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরো সাত জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃত রবিনের বিরুদ্ধে থানায় চারটি মাদকদ্রব্য আইনে মামলা রয়েছে।
পুলিশ জানায়, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার দৌলতদিয়ার নবনির্মিত ৭নম্বর ফেরিঘাটের প্রবেশমুখে ১১ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে একদল দুর্বৃত্ত রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়। এসময় গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর নেতৃত্বে এস.আই জাকির হোসেন, এস.আই রবিউল ইসলাম, এএসআই মোতালেব মুন্সীসহ একদল পুলিশ ধাওয়া করে। এসময় হাতেনাতে উপজেলার উত্তর দৌলতদিয়া সিদ্দিক কাজী পাড়ার দুলাল মোল্লার ছেলে জাহিদ মোল্লা ওরফে বাপ্পী (৩২), উত্তর দৌলতদিয়া হোসেন মন্ডল পাড়ার ধীরেন শীল এর ছেলে সবুজ শীল (২৫) ও দৌলতদিয়া ছাত্তার মেম্বার পাড়ার মনি ফকিরের ছেলে জুয়েল ফকির (২৮) নামের তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে দুটি ধারালো বড় রাম দা, দুটি ছোড়া, নাইলন রশি, ছালার বস্তা ও ফেরিঘাট সড়কে আড়াআড়ি করে রাখা মাঝারী আকারের একটি গাছের গুঁড়ি জব্দ করে। এ ঘটনায় গোয়ালন্দ ঘাট থানায় এস.আই জাকির হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন এবং মামলাটি তদন্ত করছেন এস.আই রবিউল ইসলাম।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, ডাকাতির ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী জড়িত থাকার অভিযোগে সোমবার রবিন খানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে বৃহস্পতিবার বিকেলেই রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে। রবিনের বিরুদ্ধে থানায় চারটি মাদকদ্রব্য আইনে মামলা রয়েছে। ডাকাতির ঘটনায় এখন পর্যন্ত এজাহার নামীয় ৬জন এবং সন্ধিগ্ধ দুই জনসহ ৮জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

সম্প্রতি সংবাদ