ব্রেকিং নিউজ

নাগরপুরে হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার

editor ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:২৪ অক্টোবর-২০২০
টাঙ্গাইলের নাগরপুর থেকে হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেছে নাগরপুর থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামী লুকিমুদ্দিন লোকমান (৪৮) উপজেলার ভাড়রা গ্রামের মৃত হযরত আলীর ছেলে। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে শনিবার ভোরে ভারড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত লোকমানের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলম চাঁদ।
এ বিষয়ে নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলম চাঁদ জানান, টাঙ্গাইলের মির্জাপুর থানায় দায়ের করা হত্যা মামলায় (মামলা নং-০১ (০৮)১৩ ধারা ৩০২/৩৪ পেনাল কোড জি আর সাজা নং ৩৮/২০ প্রসেস নং ৩৮/২০ তারিখ ০৫/০৩/২০২০ ইং) অভিযুক্ত আসামী লোকমানকে আদালত মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেন। সে দীর্ঘদিন যাবৎ গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাগরপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে এসআই সিরাজুল, এএসআই গোলাপ, এএসআই আনিস, এএসআই রাসেল, এএসআই জহিরসহ সঙ্গীয় ফোর্স শুক্রবার রাতভর অভিযান চালিয়ে লোকমানকে শনিবার ভোরে গ্রেফতার করে।
মির্জাপুর থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জামুর্কি ইউনিয়নের বানগুটি গ্রামের আওয়াল মিয়া হত্যায় ছেলে আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মির্জাপুর থানায় ২০১৩ সালে ৩০২/৩৪ ধারায় হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে তার আচরণে সন্দেহ হলে বাদী আসাদুজ্জামানকে আটক করে থানা পুলিশ। তখন বেরিয়ে আসে আওয়াল হত্যার ”াঞ্চল্যকর তথ্য। বাবাকে হত্যার করতে তিনজন খুনিকে তিন লক্ষ টাকা দিয়ে চুক্তি করে। চুক্তি অনুযায়ী লোকমানসহ আরো ৩ জন এ হত্যাকান্ডে অংশ নেয়। ছেলে আসাদুজ্জামান ছাড়াও এ হত্যাকান্ডে জড়িত অপর আসামীরা হলো লোকমান, জহির উদ্দিন ঝরু, আব্দুল মান্নান ও আওয়াল। তদন্ত সাপেক্ষে মির্জাপুর থানার এস আই শ্যামল দত্ত বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আসামী লোকমান, আ.মান্নান ও আওয়াল পলাতক ছিল। অপর দুই আসামী জেল হাজতে রযেছে।

সম্প্রতি সংবাদ