ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুরে আ’লীগ নেতার ছেলে কর্তৃক প্রিমিয়ার লীগ ক্রিকেটারকে লাঞ্ছিতের ঘটনার সমাধান 

editor ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর সৈয়দপুরে অবশেষে প্রিমিয়ারলীগ ক্রিকেটারকে উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদকের ছেলে কর্তৃক লাঞ্ছিত করা ও প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান করা হয়েছে। ৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে আ’লীগ কার্যালয়ে এর সমাধান করেন নেতৃবৃন্দ ও প্রিমিয়ার লীগ আয়োজক ক্রিকেটপ্রেমীরা। এসময় উভয়ের মধ্যে কোলাকুলি ও প্রীতি সৌজন্য প্রকাশের মাধ্যমে ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটে।
উল্লেখ্য, গত ১ নভেম্বর সৈয়দপুর উপজেলার বিভিন্ন ক্রিকেট ক্লাবের সমন্বয়ে ও স্থানীয় ক্রিকেট প্রেমীদের আয়োজনে সৈয়দপুর প্রিমিয়ার লিগ (এসএলপি) খেলা শুরু হয়। গত ৩ দিন যাবত খেলা চলছে।
এমতাবস্থায় সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  মহসিনুল হক মহসিন এর ছেলে সিয়াম তার বাবাকে কে বা কারা গালি দেয়ার অভিযোগে এবং খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এক যুবলীগ নেতাকে আমন্ত্রন করায় খেলার আয়োজক কমিটির সদস্য জুয়েল ও কয়েকজন খেলোয়াড়কে মোবাইলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।
এরই সূত্র ধরে ৪ নভেম্বর বুধবার ২ টার সময় তাদেরকে আওয়ামী লীগ নেতা প্রকৌশলী রাশেদুজ্জামান রাশেদ এর দিনাজপুর রোডস্থ অফিসে ডাকা হয়। সেখানে  দেশিয় অস্ত্রসহ কয়েকজন ছেলে নিয়ে সিয়াম তাদেরকে মারার হুমকি দেয় একপর্যায়ে একজন ক্রিকেটার জুয়েলের গায়ে হাত দেয়।
এর প্রতিবাদে বুধবার বিকাল ৫টায় সৈয়দপুর শহরস্থ বঙ্গবন্ধু চত্বর (মোড়) সড়ক অবরোধ করা হয়। এতে এই মোড়ের সাথে সংযুক্ত চারটি  রাস্তায় শত শত যান আটকা পড়ে। সেখানে খেলোয়াড়, আয়োজক ও স্থানীয় জনগনসহ প্রায় ৩ শতাধিক লোক অংশগ্রহণ করেন এবং উক্ত ঘটনার সুষ্ট তদন্তের দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।
পরে  উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ  বিক্ষোভকারীদের সাথে কথা বলে ঘটনার সু্ষ্ঠ তদন্তের আস্বাস দিলে তারা সড়ক অবরোধ তুলে নেয়। পরবর্তীতে উক্ত সড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। রাতে সৈয়দপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয় ক্রিকেটাররা।
এনিয়ে সৈয়দপুর জুড়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। সোস্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলে। এমনকি এঘটনার সংবাদ প্রকাশ করায় একজন সংবাদকর্মীকে কুটুক্তি করায় তুমুল হইচই পড়ে যায় প্রেসজগতসহ শহরজুড়ে। এরই প্রেক্ষিতে আজ সমাধানের উদ্যোগ নেয়া হয়।

সম্প্রতি সংবাদ