ব্রেকিং নিউজ

মোহনপুরে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূকে মারপিটের অভিযোগ

editor ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

 এম,এ রাজ্জাক, ব্যুরো অফিস রাজশাহীর:০৫ নভেম্বর-২০২০,বৃহস্পতিবার।

রাজশাহীর মোহনপুরে গৃহবধূকে (৩৫ ) ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তাঁকে মারপিট করে গুরুতর জখম করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে অাসামি করে থানায় মামলা করেছেন ওই গৃহবধূ। উপজেলার গোছা খন্দকার পাড়া গ্রামে বুধবার রাত ৮ টার সময় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ওই আসামির নাম খন্দকার হাফিজুর রহমান হেফজুর (৩৮)। সে মোহনপুর উপজেলার গোছা খন্দকার পাড়া গ্রামের খন্দকার সাইফুদ্দিনের ছেলে। তিনি এখন পলাতক। গুরুতর আহত ওই গৃহবধূ মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন । এদিকে ওই গৃহবধূর ভাই সিদ্দিকুর রহমান মাষ্টার থানায় মামলা করতে সহযোগিতা করাই অাজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টার সময় কেশহাটে হুমকি প্রদান করে মামলার অাসামি হাফিজুর রহমান। পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মোহনপুর উপজেলার গোছা খন্দকার পাড়া গ্রামের সাইফুদ্দিনের ছেলে খন্দকার হাফিজুর রহমান বিভিন্ন সময় যাওয়া-আসার পথে ওই গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করতেন। প্রতিদিনের মতো বুধবার (৪ নভেম্বর) রাতে মেয়ে (৬) নিয়ে বাড়িতে ছিলেন ওই গৃহবধূ। ওই সময় গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে ছিলেন না। রাত ৮ টার সময় ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করে অাসামি হাফিজুর রহমান। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে মেয়ে চিৎকার শুরু করে। এতে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে খন্দকার হাফিজুর রহমান গৃহবধূকে মারপিট করে গুরুতর জখম করেন। এ সময় গৃহবধূর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে খন্দকার হাফিজুর রহমান পালিয়ে যান । পরে স্থানীয় লোকজন গৃহবধূকে উদ্ধার করে রাতেই মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। ওই গৃহবধূর স্বামী বলেন, তার স্ত্রী কুপ্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত করলে তাঁর ক্ষতি করার হুমকি দেন অাসামি খন্দকার হাফিজুর রহমান। আমি অাসামির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’ মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, এ ঘটনায় গৃহবধূর বাদী হয়ে খন্দকার হাফিজুর রহমানকে আসামি করে মামলা করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।

সম্প্রতি সংবাদ