নাগরপুরে পৃথক ঘটনায় দুইজনের অপমৃত্যু

editor ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ১৬ নভেম্বর-২০২০
টাঙ্গাইলের নাগরপুরে পৃথক ঘটনায় দুইজনের অপমৃত্যু হয়েছে। গো খাদ্য (খড়) আনতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক কলেজ ছাত্রী ও গলায় ফাস লাগিয়ে এক বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। নিহত বিএ অনার্স পড়–য়া কলেজছাত্রী আতিয়া আক্তার (২২) উপজেলার ধুপটিয়া গ্রামের আদর আলীর মেয়ে। অপরদিকে উপজেলার বাবনাপাড়া গ্রামের কর্মকার পাড়া থেকে স্বপন কর্মকার (৫০) নামের এক ব্যক্তির গলায় ফাস লাগানো মরদেহ উদ্ধার করেছে নাগরপুর থানা পুলিশ। সে ঐ গ্রামের স্বর্গীয় দিনেশ কর্মকারের ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, সোমবার (১৬ নভেম্বর) ভোরে নিজ বাড়িতে গো খাদ্য (খড়) আনতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় আতিয়া। সেসময় নদীতে মাছ ধরতে যাওয়া এক মৎস্য শিকারী খড়ের গাদার সামনে আতিয়াকে পড়ে থাকতে দেখে সকলকে খবর দেয়। খবর পেয়ে তার পরিবার ও এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে এসে সেখান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। আতিয়ার বাবা আদর আলী বলেন, খড়ের গাদার উপর একটি কাঁচা বাঁশ পড়েছিল। যেটি খড়ের গাদার উপর দিয়ে টানানো বিদ্যুতের তারের সঙ্গে সংযোগ হয়েছিল। যা বাড়ির কেউ খেয়াল করেনি। ঐ বাঁশটি হাত দিয়ে সরিয়ে খড় আনতে গেলে আতিয়া বিদ্যুতায়িত হয়। এ ব্যাপারে নাগরপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
অপরদিকে উপজেলার বাবনাপাড়া গ্রাম থেকে গলায় ফাস লাগানো স্বর্ন কারিগর ২ সন্তানের জনক স্বপন কর্মকার ওরফে বুরোর (৫০) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ । সে বাবনাপাড়া (কর্মকার পাড়া) গ্রামের স্বর্গীয় দিনেশ কর্মকারের ছেলে। সোমবার (১১ নভেম্বর) সকালে নিজ বাড়ি সংলগ্ন দোকান ঘরের ভিতর থেকে তার লাশটি উদ্ধার করা হয়। এদিকে ঘটনা নিছক আত্মহত্যা না হত্যা এ নিয়ে এলাকায় গুনজন চলছে । নিহতর ছেলে বিশ্বজিৎ কর্মকার বাদী হয়ে নাগরপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিসুর রহমান। তিনি জানান, সোমবার সকালে পরিবারের লোকজন স্বপন কর্মকার কে দেখতে না পেয়ে দোকান ঘরে খুঁজতে যায়। দোকান ঘরের দরোজা ভিতর থেকে বন্ধ থাকায় দরজার ফাক দিয়ে তাকে পরে থাকতে দেখে। এ ব্যাপারে তিনি আরো বলেন, আমি ও আমার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা সহকারি পুলিশ সুপার (মির্জাপুর-নাগরপুর) সার্কেল দীপংকর ঘোষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর বলা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

সম্প্রতি সংবাদ