ব্রেকিং নিউজ

দৌলতদিয়া ঘাটে মাছবাহী ট্রাকে চাঁদাবাজির দায়ে ১৭ দালাল গ্রেপ্তার

editor ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শরিফুল ইসলাম, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি :১৮ নভেম্বর-২০২০,বুধবার।

দক্ষিন বঙ্গের প্রবেশদ্বার রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় মাছবাহী ট্রাকে চাঁদাবাজির দায়ে ১৭ জন দালাল কে গ্রেপ্তার করেছে গোয়ালন্দদ ঘাট থানা পুলিশ।
১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার দিনগত গভীর রাত পর্যন্ত ঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করেছে। এদের নামে মোঃ শরিফুল ইসলাম (২৮) নামের যশোরের এক ট্রাক চালক বাদী হয়ে থানায় চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন।
গ্রেফতার কৃত আসামীরা হচ্ছেন, রাজীব মন্ডল (২৩),আজিজুল ইসলাম (২৬), বাহাদুর খান (৩০), মোঃ হাফিজ (২৫), রাসেল মন্ডল (২১), মোঃ আলামিন (২৭), রাজু সেক (৩১), আনোয়ার হোসেন বিল্লাল (২৪), মোস্তফা সেক (২৬), খোকন ফকির (২২), দেলোয়ার হোসেন (২৪), জুয়েল সেক (২১), টিটু সেক (২০), মিন্টু ফকির (২৫), ইমরান (২৪), ফজলুল খাঁন (৪০), এবং শফিক (২৫) এছাড়াও মামলার এজাহারে অজ্ঞাত আরো ৭-৮ জনকে আসামী করা হয়েছে। গ্রেফতার কৃত আসামীদের অধিকাংশই দৌলতদিয়া ঘাট এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।
মামলার এজাহারে ট্রাক চালক শরিফুল ইসলাম উল্লেখ করেন, তিনি ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধার পর যশোরের মনিরামপুর হতে ট্রাকভর্তি মাছ বোঝাই করে সিলেটের উ˜েদ্যশে রওনা দেন। রাত সোয়া ১১ টার দিকে তিনি দৌলতদিয়া ক্যানালঘাট নামক এলাকায় এসে মহাসড়কে সৃষ্ট যানজটে আটকা পড়েন। এ সময় আটক আসামীরা সংঘবদ্ধ হয়ে লাঠি সোটা নিয়ে তার ট্রাকের সামনে এসে ২০ হাজার টাকা চাঁদাদাবি করে। তিনি আপত্তি করলে তার ট্রাকের ওপর হামলা চালিয়ে লুকিং গøাস ভাংচুর সহ অন্যন্যা ক্ষতি সাধন করে। এ সময় আসামীরা তাকে ট্রাক থেকে টেনে হিচড়ে নামিয়ে মারপিট করে। আমি বাধ্য হয়ে তাদের কে আমার পথ খরচ বাবদ সঙ্গে থাকা ৪হাজার টাকা চাঁদা হিসাবে প্রদান করি। এ সময় তারা বাকি ১৬ হাজার টাকা কয়েকদিনের মধ্যে আমাকে দিয়ে দিতে বলে। সেই সাথে তারা আমাকে হুমকি দেয় এই ঘাট দিয়ে ট্রাকে মাছ পরিবহন করলে তাকে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা করে চাঁদা দিতে হবে। অন্যথায় তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।
আসামীরা আমার ওপর হামলা কালে আমি চিৎকার করতে থাকলে আশে পাশের লোকজন ছুটে এসে ৭জন কে আটক করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে ওই ৭জন কে আটক করে। পরে তারে দেয়া তথ্য অনুযায়ী অপর ১০জন আসামীর নাম ঠিকানা উদ্ধার করে আটক করে পুলিশ। অভিযোগ রয়েছে পুলিশের কড়া অভিযানের মধ্যেও দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে নিয়মিত পারাপার হওয়া মাছ সহ বিভিন্ন কাঁচামাল বাহী অনন্ত ৫ শতাধিক ট্রাক চালকদের থেকে প্রভাবশালী দালাল চক্র ট্রাক ভেদে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নিচ্ছে। কেউ আপত্তি করলে তাদেরকে মারপিটের শিকার হতে হচ্ছে।
এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ্ আল তায়াবীর বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের কে বুধবার আদালতের মাধ্যমে রাজবাড়ী কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চলছে। দৌলতদিয়া ঘাট কে চাঁদাবাজ ও দালাল মুক্ত রাখতে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

সম্প্রতি সংবাদ