ব্রেকিং নিউজ

পাংশায় বীর মুক্তিযোদ্ধা নাদের মুন্সীর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

editor ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

 মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি :২২ নভেম্বর-২০২০,রবিবার।

রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার হাবাসপুর ইউপির কাচারীপাড়া গ্রামে পারিবারিক আয়োজনে গত শনিবার (২১ নভেম্বর) বিকেলে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত বীর মুক্তিযোদ্ধা নাদের মুন্সীর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী।
তিনি বলেন, রাজনৈতিক চক্রান্তে নাদের মুন্সী খুন হয়েছেন। দলের মধ্যে হাইব্রিড ঢুকিয়ে, সন্ত্রাসী ঢুকিয়ে তাদের দিয়ে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়। নাদের মুন্সী ছিলেন জনবান্ধব নেতা। খুনের শিকার হতে হবে এমন কোনো কর্মকান্ডের সাথে তিনি জড়িত ছিলেন না। তিনি ছিলেন আওয়ামী লীগের একজন ত্যাগী নেতা। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে তিনি দলের জন্য অনেক কাজ করেছেন। তিনি নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। রাজবাড়ী জেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছিলেন। সর্বপরি বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন তিনি। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকতে, উপজেলা পরিষদের একজন নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় দিনেদুপুরে গুলি করে হত্যা করার নেপথ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলে তার খুনের সাথে জড়িতদের আইনী আওতায় এনে বিচার দাবী করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, রাজবাড়ী-২ আসনের প্রাক্তন জাতীয় সংসদ সদস্য ও পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিয়া, সাবেক ডেপুর্টি এ্যাটর্নী জেনারেল এ্যাডভোকেট ফরহাদ আহমেদ, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী হক, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু, রাজবাড়ী জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবুল হোসেন, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এস.এম নওয়াব আলী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমজাদ হোসেন, কালুখালী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও কালুখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কাজী সাইফুল ইসলাম, কালুখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম, রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রাকিবুল হাসান পিয়াল, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম খান ও দিবালোক কুন্ডু জীবন, মৃগী শহীদ দিয়ানত কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, রাজবাড়ী জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কার খান ও বাহাদুরপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মুন্সী হাসানুল ইসলাম প্রমূখ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মরহুম নাদের মুন্সীর জ্যেষ্ঠপুত্র পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা মাহমুদ (হেনা মুন্সী)।
বিশেষ অতিথিবৃন্দ বীর মুক্তিযোদ্ধা নাদের মুন্সীর হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন- পাংশা, কালুখালী ও বালিয়াকান্দির ৮টি খুনের শোকাহত পরিবার এবং দলের নির্যাতীত-নিপীড়িতরা আজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। রাজনৈতিক দুবর্ৃৃতায়নের বিরুদ্ধে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও এখন ঐক্যবদ্ধ। ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্ব দলের মধ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে কাজ করছে। কেউ নির্যাতীত-নিপীড়িত হলে আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী এমপির নেতৃত্বে নির্যাতিত-নিপীড়িতদের পাশে থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা। নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের মধ্যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। দলের মধ্যে থেকে যারা দুর্নীতি করছে, রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন করে দলের মধ্যে বিশৃঙ্খলা ও বিভাজন করছে আওয়ামী লীগে তাদের ঠাই হবে না। বক্তারা রাজবাড়ীর পুলিশ সুপারের সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থানের প্রশংসা করেন। হত্যা-নির্যাতন-নিপীড়ন ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শান্তি জানানোর পাশাপাশি কোনো নেতাকর্মী মিথ্যা মামলার শিকার হয়ে থাকলে তা কমিশন গঠনের মাধ্যমে সুষ্ঠু তদন্ত কার জন্য রাজবাড়ীর পুলিশ সুপারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাবেক ডেপুর্টি এ্যাটর্নি জেনারেল এ্যাডভোকেট ফরহাদ আহমেদ।
অনুষ্ঠানে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন কাচারীপাড়া বাজার সংলগ্ন জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফিজুর রহমান। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতা হেদায়েত হোসেন সোহরাব, মহসীন উদ্দিন বতু, কালুখালী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন, রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষক লীগের সদস্য সচিব আলাউদ্দিন আলাল, যুগ্ম আহবায়ক রাজু আহমেদ, বাগদুলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফজলুর রহমান, কলিমহর জহুরুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান, পাংশা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক ফজলুল হক ফরহাদ, আহম্মদ আলী বাদশা, রজব আলী মোল্লা, মোস্তাফিজুর রহমান, হায়দার আলী ও ফরিদ উদ্দিন মাস্টার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত ঃ ২০১৪ সালের ২০ নভেম্বর সকালে কাচারীপাড়া নিজ গ্রাম থেকে মোটর সাইকেল যোগে পাংশা শহরে যাওয়ার পথে কাচারীপাড়া বাজারের অদূরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুরুতর আহত হন বীর মুক্তিযোদ্ধা নাদের মুন্সী। ২১ নভেম্বর রাতে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ