ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আখতার হোসেন বাদল আর নেই

editor ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ১২ ডিসেম্বর-২০২০

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সভাপতি, সৈয়দপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আখতার হোসেন বাদল (৬৫) আর নেই। তিনি ১২ ডিসেম্বর শনিবার বেলা ১টার দিকে রংপুর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, রংপুর বিভাগীয় ও নীলফামারী জেলা কমিটির সভাপতি আখতার হোসেন বাদলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি, নীলফামারী-২ আসনের এমপি ও সাবেক সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আদেলুর রহমান আদেল এমপি(নীলফামারী-৪), নীলফামারী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদসহ জেলা, সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, শিক্ষক, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজ ও সর্বস্তরের মানুষ।গত ৮ ডিসেম্বর দিবাগত রাত থেকে ডায়াবেটিস ও রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ায় ৯ ডিসেম্বর রাত ১০  টার দিকে আখতার হোসেন বাদলকে রংপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রংপুর সেনানিবাসের সিএমএইচ এ স্থানান্তর করা হয়। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে গত ১১ ডিসেম্বর রাতে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু তাঁর পালস রেট খুবই কমে যাওয়ার কারনে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়ে উঠেনি।  আজ ১২ ডিসেম্বর দুপুর বেলা তাকে এয়ার আ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছিলো। কিন্তু সকাল থেকে বৈরী আবহাওয়ার কারনে  সিভিল অ্যাভিয়েশন  হেলিকপ্টার উঠানামার কোন ছাড়পত্র দেয়নি। এমতাবস্থায় তিনি দুপুর ১ টার দিকে মৃত্যু বরণ করেন। পরে বেলা ৩ টার দিকে সিএমএইচ এর একটি এম্বুলেন্সে করে তার মৃতদেহ সৈয়দপুরে আনা হয়। এসময় সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে মোটর শ্রমিক নেতা ও দলীয় নেতাকর্মীরা সমবেত হয়। সেখান থেকে শহরের নতুন বাবুপাড়াস্থ বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁর মৃত্যুর খবরে আ’লীগ অঙ্গন সহ সর্বস্তরের সৈয়দপুরবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। কান্নার রোল পড়েছে তাঁর মৃতদেহ ঘিরে। পারিবারিক বা দলীয় কেন সূত্র থেকেই মরহুমের জানাজা কখন কোথায় হবে এবং তাঁকে কোন স্থানে দাফন করা হবে সে বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত জানা যায়নি।

সম্প্রতি সংবাদ