ব্রেকিং নিউজ

দৌলতপুরে অনুমতি না নিয়ে গাছ বিক্রি করে ফেঁসে গেলেন চেয়ারম্যান

editor ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ breaking সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২১ ডিসেম্বর-২০২০,সোমবার।
অনুমোদন না নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের গাছ কেটে পাচার করা ও সরকারি কোষাগারে টাকা জমা না দেওয়ার অপরাধে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলা চকমিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।
দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইমরুল হাসান জানান, চরমিরপুর ইউনিয়নের পরিষদের বর্জ্রপাতে অর্ধমৃত একটি সেগুনগাছ,আকাশ মনি লিখিত বা মৌখিক অনুুমতি না নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম কাঠ ব্যবসায়ী কহিনুর ইসলামের কাছে বিক্রি করে দেয়। গত ৯ ডিসেম্বর ওই গাছ কাঠ ব্যবসায়ী কহিনুর ইসলাম কেটে নিয়ে যায়। বিভিন্ন স্থানে খোঁজ খবর নিয়ে সোমবার নাগরপুর উপজেলার ভাদ্রা রহিমের স’ মিল থেকে ২০ ঘণফুট ওই গাছ গুড়ি উদ্ধার করা হয়। এব্যাপারের দৌলতপুর উপজেলা বন কর্মকর্তা মোঃ মহসিন হোসেন বাদি হয়ে থানায় মামলা করেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলামকে গাছ টাকার ব্যাপারের লিখিত বা মৌখিক কোন অনুমোদন দেওয়া হয়নি। সেই সাথে বিক্রিত গাছের টাকা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাত করেছেন।
ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম জানান, ইউনিয়ন পরিষদের সামনে দুই বছর আগে বজ্রপাতে একটি সেগুন গাছ,আকাশমনি গাছ মরে যায়। বিভিন্ন সময় ডালপালা পড়ে লোকজন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা সমন্বয় সভায় একাধিকবার ঝুকিপূর্ন ওই গাছ কাটার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সর্বশেষ উপজেলা বন কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মৌখিক অনুমতি নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের রেজুলেশনে মাধ্যমে গাছটি কাটা হয়েছে। ৮০ হাজার টাকা মূল্য ধরে ৩৫ হাজার টাকা নগদ পেয়ে গাছটি কাঠ ব্যবসায়ী কহিনুর ইসলামকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। সবগুলো টাকা হাতে পাওয়ার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পরামর্শে তা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হবে। মামলা হওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন প্রতিপক্ষের লোকজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ভুলবুঝিয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছেন।
দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম জানান, অনুমতি না নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের গাছ বিক্রি করার অভিযোগে উপজেলা বন কর্মকর্তা একটি লিখিত দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 

সম্প্রতি সংবাদ