ব্রেকিং নিউজ

পাংশার কশবামাজাইল ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান প্রার্থী রাকিব বিশ্বাসের বিশাল শোডাউন

editor ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি :৩১ জানুয়ারী-২০২১,রবিবার।

আসন্ন ইউপি নির্বাচন-২০২১ সামনে রেখে রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার কশবামাজাইল ইউপিতে জনমত গঠনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান প্রার্থী রাকিবুল ইসলাম (রাকিব বিশ্বাস) রবিবার ৩১ জানুয়ারী বিকেলে ইউনিয়ন ব্যাপী বিশাল শোডাউন করেছেন। ৫শতাধিক মোটর সাইকেল, অটোভ্যান ও অটোবাইকের বহর নিয়ে কশবামাজাইল কলেজ চত্বর থেকে শোডাউনের শোভাযাত্রা শুরু হয়। শোডাউনেরবহর কুঠিমালিয়াট, ভাতশালা, কেয়াগ্রাম, সুবর্ণকোলা, কালীবাড়ী হাট, সোলুয়া, নটাভাঙ্গা, শান্তিখোলা, বড়খোলা, নাদুরিয়া, দড়িবাংলাট, মল্লিকপাড়া ও কশবামাজাইল বাজার হয়ে পুনরায় কশবামাজাইল কলেজ চত্বরে সমবেত হয়। সেখানে এক পথসভায় তরুণ সমাজসেবী রাকিবুল ইসলাম বলেন, কশবামাজাইল একটি বর্ধিষ্ণু এলাকা। অত্র এলাকায় অনেক গুণীমানুষের জন্ম হয়েছে। তারা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতি অর্জণ করে কশবামাজাইল ইউনিয়নকে সমৃদ্ধ করেছেন। শিক্ষা ও সামাজিক উন্নয়ন এবং জনকল্যাণমূলক কাজের অতীত ঐতিহ্য ও সমৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা রয়েছে। সেই দায়বদ্ধতা থেকে কশবামাজাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী সংগঠনে রূপদান করা এখন জরুরী হয়ে পড়েছে। বর্তমান যুবসমাজকে মাদক থেকে দূরে রেখে তাদের কর্মমুখীকরণ এবং তাদেরকে খেলাধুলায় অনুপ্রেরণা দিয়ে সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে নিতে হবে।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশক উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে পরিচিত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। এ জন্য প্রয়োজন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনকে ঐক্যবদ্ধ ও সুসংগঠিত করা।
রাকিব বিশ্বাস বলেন, আমি আপনাদের একজন সন্তান হিসেবে এলাকার মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। আপনারা সুযোগ দিলে-সহযোগীতা করলে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কশবামাজাইল ইউনিয়কে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো ইনশাল্লাহ।
জানা যায়, কশবামাজাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করে সাংগঠনিক কর্মকান্ড বেগবান করতে নিরলসভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে একজন জনবান্ধব নেতা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন রাকিব বিশ্বাস। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগদান, দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের এবং দরিদ্র মানুষের সাহায্য সহযোগীতা প্রদান, দরিদ্র শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণসহ সামাজিক সেবা ও জনকল্যাণমূলক কার্যক্রমে সম্পৃক্ত রয়েছেন তিনি। এলাকার মানুষের সুখ-দুখের সাথী হিসেবে নিরলসভাবে উঠান বৈঠকসহ জনযোগাযোগ কার্যক্রম বৃদ্ধি করেছেন উদীয়মান সমাজসেবী রাকিবুল ইসলাম বিশ্বাস।
জানা যায়, কশবামাজাইলের ঐতিহ্যবাহী বিশ্বাস পরিবারের সুশিক্ষিত তরুণ সমাজসেবী রাকিবুল ইসলাম। তার পিতা মরহুম মশিয়ার রহমান (মাখন বিশ্বাস) একজন শিক্ষানুরাগী ভালো মানুষ ছিলেন। রাকিবুল ইসলাম বিশ্বাসের চাচা মরহুম ডাঃ ইব্রাহিম বিশ্বাস ও চাচাতোভাই মরহুম জিয়াউর রহমান (ফটিক চেয়ারম্যান) বৃটিল আমল থেকে দীর্ঘদিন কসবামাজাইল ইউপির চেয়ারম্যান ছিলেন। অত্যন্ত সততা ও সুনাম সর্বজনবিদিত।
স্থানীয়রা জানায়, রাকিবুল ইসলাম একজন সদাহাস্য-মিষ্টভাষী উদীয়মান সমাজসেবক ও সফল ব্যবসায়ী। শিক্ষাজীবন শেষে ১৯৯৩ সালে তিনি ব্যবসার উদ্দেশ্যে রাশিয়া গমন করেন। সাফল্যের সাথে ব্যবসা পরিচালনার পর ২০০০ সালে দেশে ফিরে ব্যবসা পরিচালনা করেন। বর্তমানে গার্মেন্টস ব্যবসার সাথে জড়িত তিনি। ঢাকায় ব্যবসা পরিচালনা করলেও নিয়মিতভাবে নাড়ীর টানে গ্রামে ফিরে আসেন তিনি এবং অব্যাহতভাবে ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন এছাড়া গরীব মানুষের সাহায্য সহযোগীতা করে চলেছেন তিনি। কসবামাজাইল নাদির হোসেন গার্লস হাইস্কুলে মশিয়ার রহমান স্মৃতি মিলনায়তন তারই অর্থে প্রতিষ্ঠিত। তিনি কুঠিমালিয়াট সিফাত হিফজুল কোরআন একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। কশবামাজাইল আলহাজ্ব আমজাদ হোসেন ডিগ্রি কলেজ ও নাদির হোসেন গার্লস হাইস্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্য। এশিয়া, আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করে সেখানকার শিক্ষা ও সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডের অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের একজন সক্রিয় ও পরিচ্ছন্ন কর্মী হিসেবে কশবামাজাইল ইউনিয়নে ঐক্যবদ্ধভাবে দলকে সুসংগঠিত করতে কার্যকরী ভ‚মিকা রাখছেন। সন্ত্রাস, মাদক ও বাল্যবিয়ে মুক্ত কশবামাজাইল ইউনিয়ন গড়ে তুলতে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ