ব্রেকিং নিউজ

পরাজয় জেনে সৈয়দপুরেও বিএনপি উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে- নানক

editor ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ breaking জাতীয় সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ২৬ ফেরুয়ারী-২০২১,শুক্রবার।
সৈয়দপুর পৌর নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনে নিজেদের লজ্জা ঢাকতে এখানেও বিএনপি  উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। এটা তাদের চিরায়ত চরিত্র। মিথ্যেচার করে জনগনের সাথে প্রতারণা করাই তাদের রাজনীতি। কিন্তু জনগন এখন সচেতন এবং নিজেদের ভালোমন্দ বোঝে। একারনে বিএনপি’র সব ষড়যন্ত্র নস্যাৎ হবে এবং সৈয়দপুরে নৌকার বিজয় নিশ্চিত হবে।
উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) দুপুর সাড়ে ১২ টায় শহরের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গনে নৌকা মার্কার সমর্থনে উর্দূভাষী ক্যাম্পবাসীদের নিয়ে আয়োজিত পথসভা এবং দুপুর ২ টায় সৈয়দপুর পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ প্রাঙ্গণে ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় সভায়  প্রধান অতিথির ভাষনে এসব কথা বলেন।
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম কৃক, নীলফামারী জেলা সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আইনজীবি সভাপতি মমতাজুল হক, সৈয়দপুর উপজেলা সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোগখছেদুল মোমিন, উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকী, যুবলীগের আহবায়ক দিল নেওয়াজ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
এসময় ক্যাম্পবাসীদের পক্ষ্যে বক্তব্য রাখেন, উর্দূভাষী নেতা আশরাফুল হক বাবু, বাঁশবাড়ী ক্যাম্পের সভাপতি আকবরই আজম ও খুলনা থেকে আগত শাহিন আলম।
ভোটারদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সৈয়দপুরের প্রকৃত উন্নয়ন চাইলে মেয়র পদে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশব্যাপী যে উন্নয়নের জোয়ার চলছে তা থেকে সৈয়দপুর বাদ নেই। কিন্তু একটি পৌরসভায় উন্নয়ন করতে হলে তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমেই করতে হয়। সেটা করতে হলে নৌকা মার্কার প্রার্থীকে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করতে হবে।
জাহাঙ্গীর কবির নানক আরও বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় সৈয়দপুর বিমানবন্দর আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হচ্ছে। আর্মি ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের মান আরও বৃদ্ধি করা হয়েছে। সৈয়দপুর কারিগরী মহাবিদ্যালয়কে বিজ্ঞান কলেজে রুপান্তর করাসহ পৃথক একটি টেকনিক্যাল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।
ইতোপূর্বে শেখ হাসিনাই উত্তরা ইপিজেড প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে মঙ্গাপীড়িত নীলফামারীকে আমুল বদলে দিয়েছে। একইভাবে অর্থনৈতিক জোন তৈরীর মাধ্যমে ব্যাপক কর্মসংস্থান ও আর্থিক বিপ্লব ঘটনানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। রেলওয়ে কারখানাতে আরও একটি ওয়াগন সপ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে উন্নয়নের মাত্রা ত্বরান্বিত করা হচ্ছে।
এই ধারাবাহিকতায় নীলফামারী ও সৈয়দপুরে আরও নানা ধরণের উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হবে। কিন্তু পৌর এলাকায় কোন কাজ করতে গেলে তা পৌর পরিষদের মাধ্যমেই করতে হবে। তাই এখানে মেয়র পদে আওয়ামীলীগের নেতা থাকলে তা অত্যন্ত সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে করা সম্ভব হবে। দীর্ঘ ৩০ বছর বিএনপি’র লোক মেয়র থাকায় উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হয়েছে সৈয়দপুর। তা থেকে উত্তরণ ঘটাতে আপনারা যদি উদ্যোগী হন এবং নৌকা মার্কায় ভোট দেন তাহলে সার্বিক উনন্নয়নের চিত্র পাল্টে ফেলা হবে। তাই আমাদের নেতা মরহুম আখতার হোসেন বাদলের স্ত্রী রাফিকা জাহান আকতার বেবীকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আগামী প্রজন্মের জন্য সমৃদ্ধ সৈয়দপুর গড়তে সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।
উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন বলেন, সৈয়দপুর বিএনপি মিথ্যে অভিযোগে তাদের নেতাকে আটক ও নির্বাচনী কাজে বাধার দেওয়ার অভিযোগ এনেছে।  সৈয়দপুরের নির্বাচনী পরিবেশ অত্যন্ত সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ রয়েছে। এতে ব্যাঘাত ঘটানোর চেষ্টা করায় গোলাহাট এলাকার সংঘর্ষে জড়িত থাকায় পৌর বিএনপির আহ্বায়ক শেখ বাবলুকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এতে আওয়ামীলীগের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই।

সম্প্রতি সংবাদ