শিবালয়ে গৃহবধুকে পুড়িয়ে মারলো শ্বশুর

editor ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ breaking সারাদেশ

 মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ ১১ মার্চ-২০২১,বৃহস্পতিবার।
মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলায় শ্বশুর জুলহাস মিয়ার দেওয়া আগুনে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে অন্তঃসত্তা এক গৃহবধু। এ ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন মেয়ে জামাই। বৃহস্পতিবার ভোরে শিবালয় উপজেলার তেওতা ইউনিয়নের যমুনা নদীর দুর্গম চর আলোকদিয়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যাওয়া ওই নারী হলেন লিবা খাতুন (২৮)। তিনি আলোকদিয়া গ্রামের সোলায়মান হোসেনের স্ত্রী। জুলহাসের মেয়েজামাই অগ্নিদগ্ধ বিল্লাল হোসেনকে পাবনার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভোর চারটার দিকে মদ্যপ অবস্থায় বাড়িতে ফেরেন জুলহাস। এ সময় নিজের মুঠোফোন খুঁজে না পাওয়ায় জুলহাস বাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকি দেন। তবে মুঠোফোন না পাওয়ায় বাড়ির টিনের ঘরে আগুল ধরিয়ে দেন। ঘরের ভেতর জ্বালানি তেল ডিজেল থাকায় আগুন দ্রæত ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ঘরের ভেতর থাকা আট মাসের অন্তঃসত্তা ছেলেবউ লিবা অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান। এ ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ মেয়েজামাই বিল্লাল হোসেনকে পাবনার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
খবর পেয়ে সকালে ঘটনাস্থলে যান শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবিরসহ পুলিশ সদস্যরা। এর পর নিহত ওই গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।
ওসি ফিরোজ কবির জানান, জুলহাস প্রায়ই মদপান করেন। সে আগে ডাকাতি করতেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতির মামলাও রয়েছে।
তিনি বলেন, এ ঘটনার পর থেকে জুলহাস পলাতক রয়েছেন। ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

সম্প্রতি সংবাদ