ভুয়া প্রশ্নপত্রের বিজ্ঞাপন শনাক্ত করে শাস্তি নিশ্চিতে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

editor ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ জাতীয়

কালের কাগজ ডেস্ক :৩১ জানুয়ারী,বৃহস্পতিবার ।
আসন্ন এসএসসি পরীক্ষা উপলক্ষে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার জন্য আবারো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সরব হয়ে উঠেছে প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী চক্রগুলো। বিভিন্ন নামে ফেসবুক, ইমো, হোয়াটসঅ্যাপে গ্রুপ খুলে ভুয়া ও চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের প্রলুব্ধ করার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে।

যদিও মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) বরিশাল ও মুন্সিগঞ্জে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব। পরীক্ষার আগেই প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের সদস্যদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এসব প্রতারক চক্রের হাত থেকে শিক্ষার্থীদের দূরে থাকতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ঘেঁটে নজরে এসেছে বিভিন্ন প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন। MD Saddam Khan নামের একটি ফেসবুক আইডির মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন বিক্রির বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছে। সেখানে লেখা হয়েছে, প্রশ্নের জন্য ইনবক্সে মেসেজ করো। রাজি থাকলে ইমো বা হোয়াটসঅ্যাপে অ্যাড হতে পারো। আমার ইমো ও হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার-01646257319. এছাড়া সেখানে বলা হয়েছে, প্রশ্ন পাওয়া যাবে পরীক্ষার আগের দিন বিকালে বা রাতে।

এছাড়া Rana RK Rana, Jewel Hossain, PSC, SSC, JSC & HSC Exam Question out. 100% common, Md. Aryan Khan, Md. Pial Chowdhury নামের ফেসবুক আইডি এবং পেজ থেকে ছাড়া হয়েছে চটকদার বিজ্ঞাপন। এর মধ্যে Rana RK Rana আইডি থেকে বলা হচ্ছে, প্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা। তোমরা যারা এবার এসএসসি পরীক্ষা দিবে তারা অনেকেই আমাকে ফোন করেছ। কারণ তোমাদের প্রস্তুতি খুব বেশি ভালো না। তোমাদের চিন্তার কোন কারণ নেই। ইনশাআল্লাহ প্রতিবারের ন্যায় এবারও আমরা তোমাদের জন্য আউট হওয়া প্রশ্নের ব্যবস্থা করেছি। যা হুবহু বোর্ড কপি থাকবে। তোমরা অনেকেই অবগত আছো যে, একমাত্র আমরাই ১০০% কমন এবং নিশ্চয়তার সাথে প্রশ্নপত্র দিয়ে থাকি। প্রশ্ন পেতে সরাসরি ফোন করবেন 01640232498 এই নাম্বারে। এছাড়াও অন্যান্য আইডি ও পেজগুলোতেও শতভাগ বোর্ডের সঙ্গে মিল রেখে অদ্বিতীয় প্রশ্নপত্র সরবরাহ করার নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ক্ষেত্র বিশেষে ১ হাজার টাকার বিনিময়ে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করার কথাও বলা হয়েছে। লেনদেনের জন্য মাধ্যম হিসেবে বিকাশ করার কথা বলা হয়েছে।

বিভিন্ন আইডি ও পেজের মাধ্যমে ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, সরকার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে। জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েই আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রগুলোকে মনিটরিং করছি। ইতোমধ্যে মুন্সিগঞ্জ ও বরিশালে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে তিন জনকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন ফেসবুক আইডি, পেজ, ইমো এবং হোয়াটঅ্যাপ গ্রুপে ভুয়া প্রশ্নপত্র বিতরণ সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন নজরে এসেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আইডি ও পেজগুলো চিহ্নিত করার সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। অপরাধী যেই হোক কোন রকম ছাড় দেয়া হবে না। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে রক্ষা করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সরকারের নির্দেশ মোতাবেক কাজ করবে।

সম্প্রতি সংবাদ