Logo
ব্রেকিং :
বিপিএলের ট্রফি গেল বরিশালে শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী বেইলি রোডের আগুনে মৃত ৩৮ জনের পরিচয় শনাক্ত, হস্তান্তর ২৯ বেইলি রোডের আগুনে ৪৬ জনের মৃত্যু : আশঙ্কাজনক ১৯ ঘিওরে রাতের আঁধারে বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেললো দুর্বৃত্তরা রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবস পালন উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা  নগরকান্দায় কুকুরের কামড়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ আহত -১০ বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হমলা লুটপাট গোয়ালন্দে দীর্ঘ দিন পর  শিল্পকলা একাডেমির কার্যক্রম শুরু, চলছে শিক্ষার্থী ভর্তি গোয়ালন্দে পায়াকট বাংলাদেশের  সেফ হোমে ইউএনও’র মানবিক সাহায্য প্রদান নেত্রকোনায় দি হলি চাইল্ড কিন্ডার গার্টেনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

আদালতের নির্দেশে শেষ দিনে ভাটা গুড়ল

রিপোর্টার / ১১৮ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ, ২০২২

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি, ৩১ মার্চ-২০২২,বৃহস্পতিবার।

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় উপজেলায় ‘কেবিএম ব্রিকস’ নামক অনুমোদনবিহীন একটি ইটভাটা গুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আরা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার মাধ্যমে ভাটাটি ধ্বংস করে।

বায়ু দূষণের মাত্রাকে ‘ভয়াবহ পরিস্থিতি’বর্ণনা করে ঢাকা ও আশপাশের জেলার অবৈধ সব ইটভাটা ১৫ দিনের মধ্যে ধ্বংস করার নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। এরই প্রেক্ষিতে সাটুরিয়ায় নির্দেশনার শেষ দিনে ভাটা গুড়িয়ে দেয় প্রশাসন।

জানাগেছে, এই ভাটাটি বিগত তিন বছর যাবত পুরোদোমে ইট প্রস্তুত করে আসছিল। লাইসেন্স না থাকায় একাধিকবার জরিমানাও করা হয় ভাটাটিকে।

লাইসেন্সের জন্য কেবলমাত্র আবেদন করেই ইট প্রস্তুত করে আসছিল ভাটাটি। যা আইনত করতে পারে না।

এ ব্যাপারে ভাটার মালিক কুদরতই খুদা মাহবুবের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে ম্যানেজার মোঃ বিনোদ আলী বলেন, ভাটার জন্য মালিকপক্ষ আবেদন করছে, কিন্তু এখন পর্যন্ত হাতে পাইনি।

সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আরা বলেন, কেবিএম ব্রিকস নামক ইট ভাটার কোন অনুমোদন ছিল না। মালিকপক্ষের নিকট কাগজপত্র চাইলে তারা প্রমাণস্বরূপ কোন দলীল দেখাতে পারেননি। আদালতের নির্দেশে তাৎক্ষনিতভাবে ভাটাটি ধ্বংস করা হয়েছে। ভাটা সংশ্লিষ্টদের সর্তক করা হয়েছে কোন অবস্থায় যেন পূণরায় ভাটা চালু না করা হয়। উপজেলায় আর কোন অবৈধ ইটভাটা নেই বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।

অভিযান পরিচালনায় সাটুরিয়া থানা পুলিশ, পরিবেশ অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস ও আনসার সদস্যরা সহযোগীতা করেন।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com