Logo
ব্রেকিং :
২ শিশুপুত্রসহ  ভাগ্নিকে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড কালিহাতী প্রেসক্লাবের নয়া সভাপতি রঞ্জন-সম্পাদক মিল্টন মানিকগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার গভর্নিং বডি নির্বাচন স্থগিত নেত্রকোনায় অনুকূলচন্দ্রের নগর পরিক্রমা সিরাজগঞ্জে বিরোধের জের ধরে  প্রতিপক্ষের   রোপনকৃত ৫০টি  চারা গাছ কর্তনের অভিযোগ নাগরপুরে ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিত  সাংবাদিকের  মৃত্যুতে নগরকান্দা প্রেসক্লাবে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ভাঙ্গা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেললাইন চালু করা হবে—-রেলপথ মন্ত্রী মোঃ জিল্লুল হাকিম সিরাজগঞ্জে শালুয়াভিটা সিনিয়র  মাদ্রাসায়  তিনটি পদে নিয়োগ পরীক্ষার  আগেই  মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে প্রার্থী চুড়ান্ত করার অভিযোগ  নাগরপুরে  শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ 
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

কেন্দুয়া ভাইরাস জ্বরে শতকরা ৬০ জন আকরান্ত 

রিপোর্টার / ৯৮ বার
আপডেট বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০২২

  বিজয় রজক,   কেন্দুয়া (নেত্রকোনা)প্রতিনিধি :১৩ জুলাই-২০২২,বুধবার
আবহাওয়া জনিত কারণে নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় বেড়েছে ভাইরাস জ্বরের প্রাদুর্ভাব। ঘরে ঘরে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে এই জ্বরে।
জানা গেছে,গত কয়েকদিনে ভ্যাপসা গরম ও বন্যার পানি কমতে থাকায় অনেকেই এ জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। এতে সব বয়সী মানুষই আক্রান্ত হচ্ছে। ভাইরাস জ্বরে আক্রান্ত হলে ওষুধ সেবন করেও তিন দিনের আগে আরগ্য লাভ হচ্ছে না।
আক্রান্তদের নুন্যতম ৩-৫ দিন ভুগতে হচ্ছে। কোনো কোনো পরিবারে সবসদস্য এক সঙ্গে জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ ফেইসবুকে অনেকেই জ্বরের অসহ্য যন্ত্রণাভোগের কথা তুলে ধরে দোয়া কামনা করছেন।
কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে প্রতিদিন আউটডোর ও ইমার্জেন্সীতে ৩ শতাধিক রোগীর আগমন ঘটে। এরমধ্যে ৬০% রোগীই জ্বরের আক্রান্ত। তবে এসব রোগী হাসপাতাল ভর্তি হয় না। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে যায়। জ্বরের আক্রান্ত রোগীর চাপ বাড়ায় বেশকিছু রোগীর করোনা পরীক্ষা করানো হলে সবারই নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে বলে জানিয়েছেন কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মাশরুফ ওয়াহিদ।
তিনি আরো বলেন,চিন্তার কোন কারণ নেই বর্তমানে অতিরিক্ত গরম ও বন্যার পানি কমতে শুরু হওয়ার কারণে ভাইরাস জ্বরের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। এই জ্বরের তেমন এন্টিবায়োটিক প্রয়োজন নেই। প্যারাসিটামল জাতীয় সাধারণ ঔষধের পাশাপাশি বেশি করে পানি-শরবত খেতে হবে। পানিশূন্যতা দেখা দিলে ওরস্যালাইন খেতে হবে।
৩ দিনেও জ্বর না কমলে এন্টিবায়োটিক সেবন করা যাবে। তবে আক্রান্তের ৫ দিন অতিবাহিত হলে নিকটস্থ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com