Logo
ব্রেকিং :
বঙ্গবন্ধু শুরুর সময়, একটি ডলারও ছিল না- মানিকগঞ্জে গৃহায়ন মন্ত্রী রাণীশংকৈলে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভা  নবাবগঞ্জে প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী-২০২৪ উদ্বোধনী /সমাপনী অনুষ্ঠান সমাজসেবার বিশেষ অবদানে সম্মাননা স্মারক পেলেন দৌলতদিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান রহমান মন্ডল ভিক্ষা ছেড়ে  বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ চাহিদা সম্পর্ণ রতনদের পাশে প্রশাসন। টাঙ্গাইল শহরে থমথমে অবস্থা ॥ ককটেল বিস্ফোরণ আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ পুলিশি বাঁধায় পন্ড  দৌলতপুরে প্রাণি সম্পদ প্রদর্শণী নাগরপুরে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী  অনুষ্ঠিত  ঘুমন্ত স্বামীর গোপণাঙ্গ কেটে সন্তান রেখেই পালালেন স্ত্রী ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস ২০২৪ উদযাপন উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

খানাখন্দে ভরা টাঙ্গাইল পৌর এলাকার একটি সড়ক বেহাল এ সড়কে জনদুর্ভোগ চরমে

রিপোর্টার / ৫৪ বার
আপডেট শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২

মুক্তার হাসান,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :১৭ সেপ্টেম্বর-২০২২,শনিবার।

টাঙ্গাইল পৌর শহরের প্রধান সড়কের বিভিন্ন অংশে কার্পেটিং উঠে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। কোথাও কোথাও সৃষ্টি হয়েছে গর্তের। ফলে একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় পানি জমে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে পৌরবাসীকে। এসব সড়কে বিপদের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে মানুষ ও যানবাহন। প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। অন্যদিকে স¤প্রতি জেলা সদর সড়কের একাংশে সংস্কার কাজ শুরু করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ। এ জন্য সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে সড়কটিতে। এমন কি সড়কের দুপাশের ড্রেন ভাঙার কারণে হেঁটে চলাচল করাও দুরূহ হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া সড়কের পাশের দখল হওয়া জায়গা উদ্ধার করতে ভাঙা হয়েছে নানা স্থাপনাও। এতে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে উঠেছে সড়কটি। এদিকে অপরিকল্পিত এ সংস্কার কাজের কারণে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পথচারীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। তাঁরা বলছেন, ভবিষ্যতে সড়ক যে প্রশস্ত করতে হবে সে চিন্তা পৌর কর্তৃপক্ষ আগে কেনো ভাবেনি? তাহলে অর্থের অপচয় হতো না। পৌরবাসীকে বারবার ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হতো না। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, টাঙ্গাইল শহরের জেলা সদর সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ সড়ক দিয়েই জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, আদালত চত্বরসহ জেলার গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরগুলোর যোগাযোগ। অপরদিকে এ সড়ক দিয়েই নিরালা মোড়সহ শহরের দক্ষিণ অঞ্চলে যাতায়াত করতে হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি বেহাল হয়ে পড়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়কের খানাখন্দে পানি জমে কর্দমাক্ত হয়ে পড়ে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে তাঁদের। তাঁরা আরও জানান, জেলার প্রথম শ্রেণির পৌরসভার যদি এই অবস্থা হয় তাহলে অন্য পৌরসভাগুলোর কী হবে। তাঁরা প্রথম শ্রেণির পৌরসভার কাঠামো অনুযায়ী ভ্যাট, ট্যাক্স দিলেও ঠিকমতো পৌর সুবিধা পাচ্ছেন না। রিকশাচালক তোতা মিয়া বলেন, আগের চেয়ে বর্তমানে শহরের রাস্তাঘাটের অবস্থা খুবই বাজে। বৃষ্টি নামলে সেই দুর্ভোগ আরও তীব্র হয়ে ওঠে। বিশেষ করে শহরের প্রধান প্রধান সড়কে হাঁটুপানি জমে। তখন দুর্ভোগের সীমা থাকে না। ব্যাটারিচালিত অটোচালক জাফর বলেন, রাস্তা ভাঙাচোরার কারণে তাঁদের অনেক সমস্যা হচ্ছে। অনেক সময় দুর্ঘটনাও ঘটছে। অপরদিকে অটো ও রিকশার বেয়ারিং ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। রাস্তা ভাঙাচোরার কারণে অনেক যাত্রীই এসব সড়ক দিয়ে আসা-যাওয়া করতে চায় না। পথচারী আশা আক্তার বলেন, বর্তমানে শহরের রাস্তা দিয়ে হাঁটাও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। রাস্তা ভাঙচুরের কারণে অনেক রিকশা ও অটোরিকশা চালকেরা যেতে চায় না। দ্বিগুণ ভাড়া দিয়ে এ পথে যাতায়াত করতে হয়। এক প্রকার বাধ্য হয়েই আমাদের যাতায়াত করতে হচ্ছে। এ বিষয়ে টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র এস এম সিরাজুল হক আলমগীর বলেন, নিরালা মোড় থেকে ডিস্ট্রিক্ট পর্যন্ত নতুন ড্রেনের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে ১০০ মিটার ঢালাই হয়েছে। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের কারণে সড়ক সংস্কার ও ড্রেনের কাজে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। দ্রæত সময়ের মধ্যে সড়কের জলাবদ্ধতা দূর করা হবে। মেয়র আরও বলেন, সড়কের দুই পাশে উন্নীতকরণ, ড্রেন সংস্কার এবং লাইটিংসহ এই তিন প্রজেক্ট নিয়ে মোট ১৪ কোটি টাকার টেন্ডার আহŸান করা হয়েছে। এসব কিছুই আধুনিক মডেলে করা হবে। এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রানুয়ারা খাতুন বলেন, জেলা সদর সড়কটি শহরবাসীর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা আশা করছি দ্রæততম সময়ের মধ্যে সড়কটি সংস্কার করে পৌরবাসীর দুর্ভোগ লাঘব করবে কর্তৃপক্ষ।

 


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com