Logo
ব্রেকিং :
নাগরপুরে আ.লীগ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন তারানা হালিম এমপি রাণীশংকৈলে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধার মৃত্যু মির্জাপুরে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণকারী আটক রাজবাড়ীতে ‘হার পাওয়ার’ প্রকল্পের আওতায় নারীদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ করেন—–রেলপথ মন্ত্রী মোঃ জিল্লুল হাকিম নাগরপুরে একতা সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংস্থার বস্ত্র বিতর  নাগরপুরে শিল্প উদ্যোক্তা কোমলের উদ্যোগে মুসল্লিদের ঈদ উপহার প্রদান চাহিদার তুলনায় বিদ্যুৎ সরবরাহ অর্ধেক \ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস টাঙ্গাইলে মাত্রারিক্ত লোডশেডিংয়ে জনজীবনে নাভিশ্বাস দৌলতদিয়ায় ১৫’শ সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে উত্তোরণ ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার বিতরন।  ২৪ ঘণ্টায় দুই কোটি ৩৫ লাখ ৪৯ হাজার ৮০০ টাকা টোল আদায় বঙ্গবন্ধু সেতু-ঢাকা মহাসড়কে একমুখী যান চলাচল কার্যকর দৌলতপুরে আওয়ামীলীগের দোয়া ও ইফতার মাহফিল
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

টাঙ্গাইলে পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

রিপোর্টার / ৯৮ বার
আপডেট বুধবার, ১৮ মে, ২০২২

 মুক্তার হাসান,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ;১৮ মে-২০২২,বুধবার।

টাঙ্গাইলে এক পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মির্জাপুর উপজেলার আগ ছাওয়ালী গ্রামের সরোয়ার মিয়ার মেয়ে সোনিয়া আক্তার বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলন করেন। সোনিয়া আক্তারের স্বামী কবির হোসেন বর্তমানে ঢাকা মিরপুর-১৪ পুলিশ লাইন্সে কর্মরত আছেন। মোতালেব মিয়ার ছেলে পুলিশ কনস্টেবল কবির হোসেনের বাড়ি টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার আমন গ্রামে। সংবাদ সম্মেলনে সোনিয়া আক্তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, কয়েক মাস যাবত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কবিরের সাথে আমার কথা হয়। এরপর এই বছরের (১৪ ফেব্রুয়ারি) আমাদের ঢাকায় বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে কবির আমার উপর চালাতে থাকে নির্মম অত্যাচার। পরে কবির টাকা দাবি করে। এ পর্যন্ত কবির আমার কাছ থেকে ৪ থেকে ৫ লক্ষ টাকা নিয়েছে। এখন কবির আমার সাথে কোন প্রকার যোগাযোগ না রেখে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। সে এখন আমার বাবাকে ফোন দিয়ে বলে, যদি সাত লক্ষ টাকা দিতে পারেন তাহলে আপনার মেয়েকে নিয়ে আমি সংসার করবো। কবিরের আগে বিয়ে হয়েছিল। সে কথা লুকিয়ে রেখে আমাকে বিয়ে করে। আমি কবিরের কঠিন বিচার চাই। কবিরের বিরুদ্ধে তার কর্মরত থানায় অভিযোগ দায়ের করবো অতি দ্রুতই। সোনিয়া আক্তারের মা নাজমা বেগম বলেন, আমার মেয়ের সাথে প্রতারণা করেছে কবির। তাই কবিরের কঠিন বিচার দাবী করছি। সোনিয়া আক্তারের বাবা সরোয়ার মিয়া বলেন, পুলিশ মানুষের নিরাপত্তা দেয়। আর সেখানে কবির আমার মেয়ের সাথে প্রতারণা করেছে। কবিরের পুলিশে থাকা মানায় না। তার কঠিন বিচার চাই। সোনিয়া আক্তারের ছোট ভাই মিরাজ বলেন, আমার বোনের সাথে যা হয়েছে তা সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে হয়েছে। এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি। এ বিষয়ে অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল কবির হোসেনকে মুটোফোনে কল করলে তিনি জানান, এই বিষয়ে এখন কথা বলতে পারবো না। পরে কথা বলবো বলে কল কেটে দেন। সংবাদ সম্মেলনে সোনিয়া আক্তারের সাথে উপস্থিত ছিলেন তার বাবা সরোয়ার মিয়া, মা নাজমা বেগম, ছোট ভাই মিরাজ মিয়া।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com