Logo
ব্রেকিং :
বঙ্গবন্ধু কাপ টেনিস টুর্নামেন্ট-২০২৩ এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত      পাবিপ্রবির ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে জ্বীনের বাদশা ও তার সহযোগী গ্রেফতার নগরকান্দায় শশা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের  বার্ষিক ক্রীড়া  প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ অফিস বার্ষিক পরিদর্শনে রেঞ্জ ডিআইজি আদমদীঘিতে ইউএনও’র কম্বল পেলেন প্রতিবন্ধী জোৎস্না বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে চেতনানাশক খাবারে শিশুসহ ৪ জন হাসাপাতালে লোহাগড়ায় মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ যুবকের লাশ উদ্ধার গোয়ালন্দে মাঠ  দিবস পালিত নাগরপুরে সরকারের উন্নয়নের ধারা প্রচারে ব্যস্ত আওয়ামীলীগ নেতা হিমু
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

তিন বাংলাদেশি নিহত গুলিবিদ্ধ ৫

রিপোর্টার / ২৯ বার
আপডেট শুক্রবার, ১৫ মার্চ, ২০১৯

কালের কাগজ ডেস্ক:১৫ মার্চ ২০১৯,শুক্রবার।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের সময় দুই মসজিদে বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ৪৯ জনের মধ্যে তিন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আরও অন্তত পাঁচ বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হয়ে স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে কয়েক জনের অবস্থা গুরুতর বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সেখানে অবস্থিত বাংলাদেশিরা জানিয়েছেন। তিনজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুইয়া।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, নিহত বাংলাদেশিরা হলেন, স্থানীয় লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আবদুস সামাদ ও তার স্ত্রী সানজিদা আকতার। অন্যজন হলেন- গৃহবধূ হোসনে আরা পারভীন। নিহত ড. সামাদ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক ছিলেন। শফিকুর রহমান ভুইয়া আরও জানান, মসজিদে হামলার ঘটনায় বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর। এ ছাড়া গোলাগুলির ঘটনার পর থেকে এক বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন অন্তত আট বাংলাদেশি। আরও দুজন বাংলাদেশির খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে অক্ষত রয়েছেন নিউজিল্যান্ড সফররত বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ড. আবদুস সামাদ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরি ছেড়ে নিউজিল্যান্ডে যান। সেখানে দীর্ঘদিন ধরে বাস করছেন তিনি। লিংকন ইউনিভার্সিটিতে কৃষি বিষয়ে অধ্যাপনা করতেন। এছাড়া নিহত হুসনে আরা পারভীনের (৪২) বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জে। তিনি সন্ত্রাসী হামলা থেকে তার অসুস্থ স্বামী ফরিদ উদ্দিন আহমদকে বাঁচাতে গিয়ে নিজেই নিহত হন। তবে তার স্বামী হামলা থেকে বেঁচে গেছেন।

হোসনে আরার স্বামী ফরিদ উদ্দিন আহমদ বর্তমানে ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে নিজের বাসায় রয়েছেন।

ওই হামলার সময় মসজিদের ভেতরেই ছিলেন বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের অধিবাসী আফসানা আক্তার রিতু। তিনি গণমাধ্যমকে সেই ভয়াবহ হামলার বিবরণ দেন। ঘটনার সময় তারা তিনজন বাংলাদেশি নারী একসঙ্গে ছিলেন। আমরা মসজিদের ভেতরে ছিলাম। হঠাৎ করে একটা শব্দ পাই। আমরা শব্দ শুনে দৌড়াদৌড়ি করে বাইরে আসি।

যারা গুলি করছিল, ওরা প্রথম মহিলাদের রুমে আসেনি, ওরা প্রথম গিয়েছিল পুরুষদের রুমে। আমরা তিনজন বাংলাদেশি এক সঙ্গে ছিলাম। তিনজনই একসঙ্গে দৌড় দিই।

আমাদের বাসা একদম মসজিদের পাশে। বাসায় আসতে এক মিনিট লাগে। গোলাগুলির শব্দ শুনে আমরা দৌড়ে বাসার দিকে আসি। কিন্তু বাসার চাবি, জুতা এগুলো মসজিদে রেখে আসছি। জান বাঁচানোর জন্য পালিয়ে আসি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূতত্ত্বে স্নাতকোত্তর শেষ করে ইউনিভার্সিটি অব ক্যান্টারবুরিতে পিএইচডি গবেষক হিসেবে কাজ করছেন মৃন্ময় মৈত্র। তার বাড়ি গাইবান্ধায়। মৃন্ময় বলেন, আমরা হতভম্ব হয়ে গেছি। এখানকার বাংলাদেশিদের সংখ্যা বেশি নয়, কমবেশি পরিচিতি আছে। পরিচিত কয়েকজন এখনো আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। পরের দিন সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায়, তার আবহ শুরু হয়েছিল শুক্রবার থেকেই। কিন্তু এ হামলার ঘটনায় সবই এলোমেলো হয়ে গেছে। এখন পুরো ক্রাইস্টচার্চ শহরে শোনা যাচ্ছে পুলিশ ও অ্যাম্বুলেন্সের সাইরেন। সবাই পরিস্থিতি বুঝতে চোখ রাখছেন সংবাদমাধ্যমে। রাস্তাঘাট পুরোপুরি ফাঁকা। জরুরি কাজ ছাড়া এখন কেউ বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না। উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন।


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com