Logo
ব্রেকিং :
দৌলতপুরে মাদক সেবন কারী ২ জনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড গনতন্ত্রকে হত্যা করছে সরকার– – আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী আমি জানি রাণীশংকৈল শান্তি প্রিয় এলাকা তারপরেও সজাগ থাকতে হবে— ডিসি মাহবুবুর রহমান বিএনপি নির্বাচনে না এলেও ভোট বর্জন করা যাবে না —– এম,পি হাফিজ উদ্দীন  নেত্রকোনায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার দাবিতে মানববন্ধন নেত্রকোনায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক সভা ঘিওর সম্প্রীতি সমাবেশ ও শারদীয় দুর্গোৎসরে মতবিনিময় সভা ঘিওর -হিজুলিয়া- ভররা সড়কের বেহাল অবস্থা ১৬ গ্রামবাসীর হাজার হাজার জনগনের দুর্ভোগ চরমে টাঙ্গাইল স্বেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশনের নতুন কমিটি গঠন দৌলতপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও দূর্গাপূজা উপলক্ষ্যে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

ত্রিশালে ড্রামট্রাকের ধুলায় ধানীখোলাবাসী অতিষ্ঠ

রিপোর্টার / ৯৪ বার
আপডেট সোমবার, ১১ এপ্রিল, ২০২২

এস.এম রুবেল আকন্দ:ত্রিশাল (ময়মনসিংহ):
ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা ১নং ধানীখোলা ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান মো. মামুনুর রশিদ সোহেলের বিরুদ্ধে ত্রিশাল থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। ধানীখোলা নাগেশ্বরী নদীর পশ্চিম এলাকার জনসাধারণ ত্রিশাল থানায় হাজির হয়ে সোহরাব আলীর পুত্র চেয়ারম্যান সোহেলের ইটভাটায় মাটি কাটা বিষয়ক অভিযোগে বলা হয়েছে, বেশকিছু ড্রামট্রাকের কারণে অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে এলাকাবাসী। প্রতিনিয়ত ১৪/১৫টি ড্রামট্রাকের বিকট শব্দ আর ধুলাবালিতে বাড়ি ঘর দোকান পাট , মসজিদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়াও এসব ড্রামট্রাক বেপরোয়াভাবে চালিয়ে রাস্তাঘাট খানাখন্দ করে ফেলার কারনে এলাকাবাসি কোন গাড়ীতে যাতায়াত করতে পারেনা।
সুস্থ লোকও অসুস্থ হয়ে যায়। এসব বিষয়ে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করলেও কোন তোয়াক্কা না করে তার কাজ করেই যাচ্ছে আর দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীর। অভিযোগকারীদের কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নদী কিংবা মাঠ যাই হোক মাটি কাটায় পরিবেশ নষ্ট আর ধুলাবালি নাকে-মুখে গিয়ে জনস্বাস্থ্য হুমকির সন্মুখিন হচ্ছে প্রতিটি মুহুর্তে। নিয়ম অনুযায়ী ভূমির শ্রেণী পরিবর্তন করতে হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতির প্রয়োজন। আইনের কোন নিয়ম-কারণ তোয়াক্কা না করে সরকারী, বেসরকারী জমির মাটি কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তনসহ এলাকার রাস্তাঘাট চলাচলের অনুপযোগী করে ফেলেছে।

প্রতিকার চেয়ে ভূক্তভোগীদের পক্ষ থেকে ত্রিশাল থানায়, উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার ভূমি বারবার গণঅভিযোগ করা হয়েছে। আমরা সমাধানের অপেক্ষায় আছি, বাঁচতে চাই। এলাকাবাসী প্রতিকার চাইলে উল্টো ভুক্তভোগীদের চাঁদাবাজ বানিয়ে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট মৌখিক অভিযোগ করেন বলে জানান, কয়েকজন ভুক্তভোগী। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি’র চেয়ারম্যান মো. মামুনুর রশিদ সোহেল জানান,আমি দীর্ঘদিন ধরে ইটভাটার ব্যবসা করি কোন অভিযোগ নেই, এখন কেন অভিযোগ। সারোয়ার হোসেন নামের এক ব্যক্তি আক্রোশ বশতঃ এই অভিযোগ করেছেন। ত্রিশাল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবু বকর সিদ্দিক জানান,এলাকাবাসী দায়ের করা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, ওসি স্যারের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com