Logo
ব্রেকিং :
বঙ্গবন্ধু শুরুর সময়, একটি ডলারও ছিল না- মানিকগঞ্জে গৃহায়ন মন্ত্রী রাণীশংকৈলে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভা  নবাবগঞ্জে প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী-২০২৪ উদ্বোধনী /সমাপনী অনুষ্ঠান সমাজসেবার বিশেষ অবদানে সম্মাননা স্মারক পেলেন দৌলতদিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান রহমান মন্ডল ভিক্ষা ছেড়ে  বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ চাহিদা সম্পর্ণ রতনদের পাশে প্রশাসন। টাঙ্গাইল শহরে থমথমে অবস্থা ॥ ককটেল বিস্ফোরণ আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ পুলিশি বাঁধায় পন্ড  দৌলতপুরে প্রাণি সম্পদ প্রদর্শণী নাগরপুরে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী  অনুষ্ঠিত  ঘুমন্ত স্বামীর গোপণাঙ্গ কেটে সন্তান রেখেই পালালেন স্ত্রী ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস ২০২৪ উদযাপন উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

নেএকোণা প্রতিদিনই বন্যার পানি  কমছে,ত্রান ও চিকিৎসা সেবায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী

রিপোর্টার / ১১৮ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২

 মোঃ খান সোহেল  ,  নেএকোণা  প্রতিনিধি:৩০ জুন-২০২২,বৃহস্পতিবার।

নেএকোণা প্রতিদিনই বন্যার পানি  কমছে,আশ্রয় কেন্দ্রগুলো থেকে মানুষ বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে। দৃশ্যমান হচ্ছে রাস্তাঘাট ও বাড়ীঘরের ক্ষয়ক্ষতি। ত্রান বিতরণ ও চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছে ১৯ পদাতিক ডিভিশন, ঘাটাইল এরিয়া সেনাবাহিনী, তবে জেলার খালিয়াজুরি, কলমাকান্দা, মোহনগঞ্জ, দুর্গাপুর, মদন ও বারহাট্টা এই পাঁচ উপজেলাসহ সারা জেলায় এখনো লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী। আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতেও রয়েছে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ। এদিকে মোহনগঞ্জের মাঘান সিয়াদার ইউনিয়নের ঘোড়াউত্রা গ্রামে  বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা পাঁচ শতাধিক বর্ন্যাত মানুষের মাঝে ত্রান বিতরণ ও চিকিৎসাসেবা দিয়েছেন। এসময় ঘোড়াউত্রা গ্রামে বর্ন্যাত মানুষের মাঝে ত্রান বিতরণ করেন, সেনাবাহিনীর ডিজি,এমএস মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান, ১৯ পদাতিক ডিভিশন, ঘাটাইল এরিয়া, জিওসি মেজর জেনারেল নকীব আহমেদ চৌধুরী। অন্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন,সেনাবাহিনীর ৭৭ ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান,৮ ইস্ট বেঙ্গল টাস্কফোর্স কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্ণেল ইমতিয়াজুর রহমান,মোহনগঞ্জ আর্মি ক্যাম্প কমান্ডার ক্যাপ্টেন নাজমুল সাকিব,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ,মোহনগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ আকঞ্জিসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় জানায়,জেলার আট উপজেলার বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্র এখনো ২৯ হাজার ৯২৮ জন বর্ন্যাত মানুষ অবস্থান করছেন। বন্যার পানিতে এপর্যন্ত ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন সাড়ে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ। মোহনগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ আকঞ্জিজানান, বন্যার পানি কমে যাওয়ায় আশ্রয়কেন্দ্র থেকে মানুষ বাড়িতে ফিরতে শুরু করেছে। আর এখনো যারা আশ্রয় কেন্দ্রে রয়েছেন তারাও বাড়ি ফিরতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর বন্যায় বেশী ক্ষতিগ্রস্থ ঘরবাড়ীর তালিকা তৈরী করা হচ্ছে তাদের সরকারী সহায়তা দেয়া হবে। বন্যা কবলিক মানুষের মাঝে প্রশাসনের ত্রান কার্যক্রম অব্যাহত আছে।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com