Logo
ব্রেকিং :
বিপিএলের ট্রফি গেল বরিশালে শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী বেইলি রোডের আগুনে মৃত ৩৮ জনের পরিচয় শনাক্ত, হস্তান্তর ২৯ বেইলি রোডের আগুনে ৪৬ জনের মৃত্যু : আশঙ্কাজনক ১৯ ঘিওরে রাতের আঁধারে বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেললো দুর্বৃত্তরা রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবস পালন উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা  নগরকান্দায় কুকুরের কামড়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ আহত -১০ বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হমলা লুটপাট গোয়ালন্দে দীর্ঘ দিন পর  শিল্পকলা একাডেমির কার্যক্রম শুরু, চলছে শিক্ষার্থী ভর্তি গোয়ালন্দে পায়াকট বাংলাদেশের  সেফ হোমে ইউএনও’র মানবিক সাহায্য প্রদান নেত্রকোনায় দি হলি চাইল্ড কিন্ডার গার্টেনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

নেত্রকোনায় পৃথক মামলার রায়ে ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

রিপোর্টার / ১২৪ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২৩

চন্দন চক্রবর্তী,স্টাফ রিপোর্টার, নেত্রকোনা :৩০ নভেম্বর-২০২৩,

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় শিশু হত্যা ও সদরের মাদকের পৃথক তিন মামলার রায়ে ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে অতিরিক্ত জজ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামীদের উপস্থিতিতে অতিরিক্ত জজ আদালতের বিচারক এ এফ এম মারুফ চৌধুরী এই রায় দেন। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হচ্ছেন, শিশু বিশাল মল্লিক (৬) হত্যায় সদর উপজেলার দেওপুর মুক্তির বাজার গ্রামের পলাশ সরকার ও সদরের পৃথক দুই মাদক মামলায় নেত্রকোনা জেলা শহরের চকপাড়া এলাকার মো. কাইয়ুম ওরফে কিংকন এবং মঈনপুর এলাকার ইয়াসমীন আক্তার।নিহত শিশু কলমাকান্দা উপজেলার ডোয়ারিয়াকোণা গ্রামের সুমন মল্লিকের মেয়ে।
আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর কমলেশ কুমার চৌধুরী জানান, সুমন মল্লিকের বাড়িতে গরু চুরি করে পলাশ সরকার ধরা পড়ে। এর জেরে ২০১৩ সালের ২৫ অগাষ্ট সকাল বেলায় বাড়িতে ঢুকে শিশুটিকে ছাদে নিয়ে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায় পলাশ সরকারসহ ৩জন। এ নিয়ে ওইদিনই শিশুটির বাবা সুমন থানায় হত্যা মামলা করেন। পুলিশ ময়নাতদন্ত শেষে একই বছরের ২৫ নভেম্বর আদালতে চার্জশীট প্রদান করেন। বৃহস্পতিবার আদালতের বিচারক পলাশ সরকারকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেন। পলাশের সাথে থাকা অপর দুইজন অপ্রাপ্ত বয়সের হওয়ায় তাদের শিশু আদালতে বিচার চলছে। অপরদিকে নেত্রকোনা সদর থানায় ২০১৮ সালের ২৭ মে ৫০৭ গ্রাম হেরোইনসহ ইয়াসমীনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে সদর মডেল থানার এস.আই সোলায়মান হক বাদী হয়ে একইদিন থানায় মামলা করেন। এ মামলায় একই বছরের ২ অগাষ্ট আদালতে চার্জশীট দেয় পুলিশ। এছাড়া ২০১৮ সালে ২৪ জুন ২৩০ গ্রাম হেরোইনসহ মো. কাইয়ুম ওরফে কিংকনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে সদর মডেল থানার এস.আই আব্দুল্লাহ আল মামুন একইদিন থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে একই বছরের ২১ অগাষ্ট আদালতে চার্জশীট দেয়। বিচারক এই ২জনকেও যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করেন।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com