Logo
ব্রেকিং :
বঙ্গবন্ধু শুরুর সময়, একটি ডলারও ছিল না- মানিকগঞ্জে গৃহায়ন মন্ত্রী রাণীশংকৈলে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভা  নবাবগঞ্জে প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী-২০২৪ উদ্বোধনী /সমাপনী অনুষ্ঠান সমাজসেবার বিশেষ অবদানে সম্মাননা স্মারক পেলেন দৌলতদিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান রহমান মন্ডল ভিক্ষা ছেড়ে  বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ চাহিদা সম্পর্ণ রতনদের পাশে প্রশাসন। টাঙ্গাইল শহরে থমথমে অবস্থা ॥ ককটেল বিস্ফোরণ আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ পুলিশি বাঁধায় পন্ড  দৌলতপুরে প্রাণি সম্পদ প্রদর্শণী নাগরপুরে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী  অনুষ্ঠিত  ঘুমন্ত স্বামীর গোপণাঙ্গ কেটে সন্তান রেখেই পালালেন স্ত্রী ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস ২০২৪ উদযাপন উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

প্রতিপক্ষের হামলায় আহত মাহাতাব উদ্দিনের ১৪ দিন পর মৃত্যু, ২ আসামী গ্রেপ্তার 

রিপোর্টার / ৬৪ বার
আপডেট বুধবার, ২ আগস্ট, ২০২৩

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:০২ আগস্ট-২০২৩,বুধবার।
মাত্র এক শতক জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে শালিস বৈধকে ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতেই প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুত্বর আহত মাহাতাব উদ্দিন (৫৫) নামে এক ব্যক্তির ১৩ দিন পর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২ জুলাই) সকাল ৬ টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন।
মাহাতাব উদ্দিন নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ সোনাখুলী সরকারপাড়ার সলিমুদ্দিনের ছেলে। এই ঘটনায় ১৭ জনকে আসামী করে মামলা হলেও পুলিশ এতোদিন নিরব ছিল। আজ মৃত্যুর খবর পেয়ে মাত্র ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।
জানা যায়, মৃত মাহতাব উদ্দীন বাড়িতে চলাচলের রাস্তার জন্য বসতভিটার এক শতক জমি কিনে নেন প্রতিবেশী মৃত ফজলু মামুদের ছেলে লালচান (৩৫) ও শরিফুলের (৩৮) কাছ থেকে। সম্প্রতি বিক্রিকৃত ওই জমি নাবালকের দাবী করে দলিল সঠিক হয়নি বলে তা বাতিল বিধায় দখল ছেড়ে দেয়ার জন্য চাপ দিয়ে আসছে জমি বিক্রিকারীরা। এতে সম্মত না হওয়ায় বিরোধ দেখা দেয় উভয় পরিবারে।
স্থানীয়ভাবে চেষ্টা করেও সুরাহা না হওয়ায় একপর্যায়ে বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান পর্যন্ত পৌঁছায়। বোতলাগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরকার জুন বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য গত ২২ জুলাই শালিস বৈঠক ডাকেন ঘটনাস্থলে। ওইদিন সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত সার্বিক পর্যালোচনা শেষে মাহাতাব উদ্দিনের পক্ষে মত দেন এবং তা উভয়পক্ষ মেনে নেয়।
মিমাংসা উপলক্ষে প্রীতিভোজ চলাকালে হঠাৎ লালচান পরিবার লাঠিসোটা, রড ও দা কুড়াল নিয়ে শালিস মানিনা বলে অতর্কিত হামলা চালায় মাহতাব উদ্দিনের বাড়িতে। এতে প্রতিবাদ করলে ইউপি  চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতেই মাহতাব উদ্দিনকে বেধড়ক মারপিট করে। প্রতিপক্ষের রডের আঘাতে মাথায় গুরুত্বর জখম হয় মাহতাব উদ্দিনের।
তাকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলে তার ভাই জমিল উদ্দিনের হাত ভেঙে দেয় লাঠির আঘাতে। এসময় তাদের মা জরিনা বেগম ও আরেক ভাই আব্দুল খালেকও আহত হয়। পরে উপস্থিত লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলে উভয়পক্ষে তুমুল মারামারি হয়।
এমতাবস্থায় ইউপি চেয়ারম্যান জুন পালিয়ে যান এবং পুলিশকে জানান। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। পরে আহতদের সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু মাহতাব উদ্দিন ও জমিল উদ্দিনের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ১৩ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মাহতাব উদ্দিন বুধবার ভোরে ইনতেকাল করেছেন।
এই ঘটনায় ওইদিনই ১৭ জনকে আসামী করে মামলা করেন কছিমুদ্দিনের ছেলে আব্দুল আজিজ। তিনি বলেন, এতদিনে পুলিশ নিশ্চুপ ছিল। আজ মৃত্যুর খবর পেয়ে মাত্র দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। আর অন্যদিকে আসামীরাসহ বিরোধীপক্ষ নিজেরাই বাড়ির জিনিসপত্র ভাঙ্চুর করে তুলকালাম করে চলেছে। এতোদিন তারা মামলা তুলে নিতে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। এখন উল্টো মামলার ভয় দেখাচ্ছে আর বলছে কেবলতো একটা মরছে। জেল যদি খাটতেই হয়, তাহলে সবগুলোকে শেষ করেই খাটবো।
মামলার তদন্তকারী অফিসার উপ পরিদর্শক (এস আই) আনিসুজ্জামান জানান, ১৭ জন আসামীর মধ্যে ইতোমধ্যে প্রধান আসামী লালচান ও তার বোন জামাই আবুজার কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে লালচানের ভাই শরিফুল ও অন্যতম আসামী মৃত আব্দুর জব্বারের ছেলে আব্দুল কাসেম (৪৫) সহ অন্যরা পলাতক রয়েছে।
সৈয়দপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম বলেন, মামলার পর থেকেই পুলিশ তৎপর। তবে পলাতক থাকায় সব আসামীকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। ইতোমধ্যে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। দ্রুতই তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com