Logo
ব্রেকিং :
ছায়াপথ সাহিত্য পরিষদের  প্রথম সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত  নাগরপুর মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন;সভাপতি ফজলুর রহমান , সাধারণ সম্পাদক মো.আব্দুল রউফ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ৬১অবৈধ করাতকল  গোয়ালন্দে শেখ কামাল আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেকিস প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত নগরকান্দায় পুলিশের অভিযানে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার,পুলিশের সংবাদ সম্মেলন ঈশ্বরগঞ্জে বাসাবাড়ি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন দাম বাড়েনি মনোহরদীর মানুষ বিক্রির বাজারে শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নত করতে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে – শিক্ষা মন্ত্রী ড. দীপু মনি ভোলায় অবৈধ অটোরিক্সায় চাপায় এক পথশিশুর মৃত্যু কেন্দুয়ায় শীতার্থদের মাঝে রিপোর্টার্স ক্লাবের কম্বল বিতরণ
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

প্রশ্নফাঁস মুক্ত পরীক্ষা: স্বস্তিতে শিক্ষার্থী-অভিভাবক

রিপোর্টার / ৪২ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল, ২০১৯

কালের কাগজ ডেস্ক: ২ এপ্রিল ২০১৯ ,মঙ্গলবার।

গতকাল থেকে সারাদেশে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। গত দুই বছরের ধারাবাহিকতায় এবারো চলমান এইচএসসি পরীক্ষায় কোনো প্রকার প্রশ্নফাঁস কিংবা প্রশ্নফাঁসের গুজব রুখতে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে প্রশ্নফাঁস রোধে গৃহীত পদক্ষেপ বাস্তবায়নে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে সংশ্লিষ্টরা। ফলশ্রুতিতে এইচএসসি পরীক্ষার প্রথম দুই দিনের পরীক্ষা কোনো প্রকার প্রশ্নফাঁসের খবর ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৩০৯ জন। এর মধ্যে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫০ জন, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে ৭৮ হাজার ৪৫১ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৫ জন। মোট কেন্দ্র সংখ্যা ২ হাজার ৫৮০টি। পরীক্ষার সময়সূচি অনুযায়ী ১ এপ্রিল থেকে ১১ মে পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে লিখিত পরীক্ষা। আর ১২ থেকে ২১ মে’র মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে।

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা নিয়ে বা প্রশ্নপত্র নিয়ে অনেক রকমের রিপোর্ট হয়। একেকটি পরীক্ষায় হাজার হাজার প্রশ্নপত্র করতে হয়। এত ধরণের প্রশ্নপত্র হয়, সেগুলো ছাপানো ও এগুলোর জন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়। যিনি প্রশ্ন করেন, যিনি প্রশ্ন মোডারেট করেন, ছাপা হওয়ার পরে এটি আর কেউ দেখেন না, বোর্ডের কেউ দেখেন না, মন্ত্রণালয়ের কেউ দেখেন না, এ বিষয়গুলো আসলে জনগণের আসলে সেভাবে জানা নেই। এই পরীক্ষাটি যে সারা দেশে একটি বিশাল কর্মযজ্ঞ সেটিও আমরা অনেক সময় হয়তো তেমনিভাবে অ্যাপ্রিশিয়েট করি না বা করতে পারি না। আশা করি সবার সহযোগিতায় যত বিশাল কর্মযজ্ঞই হোক, সবার যদি সেখানে সহযোগিতা থাকে তাহলে সেই কঠিন কাজও সহজ হয়ে যায়।

অভিভাবক ও পরীক্ষার্থীদের প্রতি গুজবে কান না দেওয়ার আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কোনো রকম গুজবে কান দেবেন না। কোনো ধরণের প্রতারণার ফাঁদে পা দেবেন না।

দ্বিতীয় দিনের পরীক্ষা শেষে রাজধানীর বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এবার শিক্ষার্থীরা কোনো প্রকার প্রশ্নফাঁসের শঙ্কা ছাড়াই পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। প্রশ্নফাঁসের শঙ্কা না থাকায় অভিভাবকরাও অনেকটাই স্বস্তিতে রয়েছেন তাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারি থাকায় ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁস সম্পর্কিত কোনো পোস্ট বা প্রশ্ন ক্রয়-বিক্রয়ের কোনো বিজ্ঞাপন চোখে পড়েনি তাদের।


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com