Logo
ব্রেকিং :
নাগরপুরে মহাসড়কের পাশে অবকাঠামো নির্মাণে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা জারি প্রভাবশালীর অত্যাচারে জীবনের ভয়ে  ছয় মাস থেকে বাড়ি ছাড়া ২টি পরিবার দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ইট ভাটায় অভিযান, জরিমানা আদায় কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা নূরুল ইসলাম নয়ন জামিনে মুক্ত নেত্রকোনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদের সভা নেত্রকোনায় অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচীর কর্মশালা নেত্রকোনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পুরস্কার বিতরনী নড়াইলে জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী গ্রেফতার ভোলার শশীভূষণে স্টুডেন্ট কমিউনিটি পুলিশিং সভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত কালিয়ায় নিখোঁজ ব্যবসায়ী ইসহাক মোল্যার লাশ উদ্ধার
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

মানিকগঞ্জে আ’লীগ নেতা রহিম খানের কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেই । শোভা পাচ্ছে জাকের পার্টির প্রধানের ছবি

রিপোর্টার / ৩০ বার
আপডেট রবিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১০ ফেব্রুয়ারী ্রবিবার।

মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ-বিষয়ক সম্পাদক, শিবালয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম খানের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি নেই । সেখানে শোভা পাচ্ছে জাকের পার্টি চেয়ারম্যান খাজা মোস্তফা আমীর ফয়সাল মোজাদ্দেদীর ছবি ।

শুক্রবার দুপুরে শিবালয় উপজেলার মহাদেবপুরে রুমী ফিলিং স্টেশনে তার ব্যক্তিগত কার্যালয়ে গিয়ে এমন চিত্রই দেখা গেছে। তার ওই অফিসটিতে জাকের পার্টির চেয়ারম্যান খাজা মোস্তফা আমীর ফয়সাল মোজাদ্দেদীর ছবি থাকলেও নেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন ছবি। অথচ ওই অফিস কে বসেই তিনি দলীয় নেতা কর্মী ও স্থানীয় ব্যক্তিদের নিয়ে সভা সেমিনার করে থাকেন। তার ওই অফিস কে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি না থাকায় তার ভিতরে দলীয় আদর্শ ও চেতনার অভাব রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকেই।

এদিকে, আগামী ১৬,১৭,১৮ ও ১৯ ফেব্রুয়ারী বিশ্ব জাকের মঞ্জিলের বার্ষিক ওরস উপলে ওই দরবারের খাদেম ও জেলার একজন প্রধান কর্মী হিসেবে ঢাকা- আরিচা মহাসড়কের বোয়ালী অক্সফোর্ড একাডেমী সংলগ্ন স্থানে নির্মান করেছেন বিশাল একটি তোরণ এবং আরিচা বেলায়েত হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ওরসের ব্যানার টানিয়েছেন ওই নেতা। ব্যানারে তিনি নিজেকে জেলা জাকের পার্টির একজন প্রধান কর্মী হিসেবে দাবী করেছেন।

বিগত ২০০৯ সালে জেলা জাকের পার্টির সভাপতি থাকাবস্থায় শিবালয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আব্দুর রহিম খান বিজয়ী হন। পরে দলীয় নীতিমালা ভঙ্গ, অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জনসহ নানাবিধ অনিয়ম-দুর্নীতির কারনে তাকে জেলা জাকের পার্টির পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। পরে তিনি ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ-বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউর রহমান খান জানু বলেন, রহিম খানের সব কিছুই ভাওতাবাজি। তার এবং তার পরিবারের সদস্যদের মাঝে কখনই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, চেতনা ছিলনা। কোন সদস্য পদ ছাড়াই তিনি আওয়ামীলীগের জেলা কমিটির অর্থ বিষয়ক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন। জাকের পার্টির নেতা থেকে তিনি রাতারাতি আওয়ালীগ বনে গেছেন। যে কারনেই তার ওই অফিসে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার কোন ছবি নেই।

এ ব্যাপারে আব্দুর রহিম খানের সাথে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com