Logo
ব্রেকিং :
হস্ত ও কুটির শিল্পকে বিশ্ব বাজারে পৌছে দেয়া হবে—– বানিজ্য প্রতিমন্ত্রী দৌলতপুরে উপজেলা প্রশাসনের বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন নগরকান্দা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন দৌলতপুরে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের সাথে সাবেক সাংসদ দূর্জয়ের শুভেচ্ছা বিনিময় নাগরপুরে আ.লীগ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন তারানা হালিম এমপি রাণীশংকৈলে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধার মৃত্যু মির্জাপুরে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণকারী আটক রাজবাড়ীতে ‘হার পাওয়ার’ প্রকল্পের আওতায় নারীদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ করেন—–রেলপথ মন্ত্রী মোঃ জিল্লুল হাকিম নাগরপুরে একতা সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংস্থার বস্ত্র বিতর  নাগরপুরে শিল্প উদ্যোক্তা কোমলের উদ্যোগে মুসল্লিদের ঈদ উপহার প্রদান
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে দুই পুত্রবধু আহত, বিচার দাবী

রিপোর্টার / ৭৯ বার
আপডেট শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০২৩

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:২৮ জুলাই-২০২৩,শুক্রবার।

একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা করে তাঁর দুই পুত্রবধূ কে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দূর্বৃত্তরা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মাথায় গুরুত্বর জখম হয়ে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এরপরও প্রশাসনের নিরবতায় হামলাকারীদের পক্ষ থেকে প্রাণনাশের হুমকিসহ নানা হয়রানী অব্যাহত থাকায় জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগছে পুরো পরিবার। মুক্তিযোদ্ধার সামনেই নৃশংস হামলার ঘটনা ও প্রতিপক্ষের বেআইনী কর্মকাণ্ডের বিচার দাবী করেছেন এলাকাবাসীসহ মুক্তিযোদ্ধা ও সচেতন মহল।

এমন ঘটনা ঘটেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের গোলাহাট মুজার মোড় ডাঙ্গাপাড়া এলাকায়। শুক্রবার (২৮ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১ টায় নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে নির্যাতনের বিশদ তুলে ধরে এব্যাপারে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড, মানবাধিকার সংগঠন ও মিডিয়ার সহযোগীতা কামনা করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারের প্রধান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইব্রাহিম আলী ভান্ডারী।

সৈয়দপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সাবেক কমান্ডার এই বীর মুক্তিযোদ্ধা জানান, বিগত ২০১১ সালে তাঁর সরকারী চাকুরীজীবী দুই ছেলে আব্দুল কাইয়ুম ও শেখ মোঃ নাসিম নামে দুই ব্যক্তির কাছ থেকে বাড়িসহ ২৩.৮০ শতাংশ এই সম্পত্তি নিয়মানুযায়ী কবলা দলিল করে নিয়েছেন। কেনার পর থেকে দীর্ঘ দিন ধরে ওই বাড়িতে বসবাস করাসহ ভোগ দখল করে আসছেন।

সম্প্রতি বাড়ির সংস্কার কাজ করাবস্থায় গত ২২ জুলাই দুই বাড়ির মাঝের রাস্তাটি সিসি ঢালাই করার সময় বিকাল আনুমানিক ৫ টার দিকে প্রতিবেশী মৃত ভোলা মামুদের ছেলে মোঃ আরিফ হোসেন (২৫), মোঃ হাবিব হোসেন (২৩) ও মোঃ আব্দুল আজিজ (২০) এবং তাদের মা মঞ্জুয়ারা বেগম (৫৮) একযোগে অতর্কিতে লাঠি সোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে এসে আমাদের উপর চড়াও হয়।

রাস্তাটি তাদের বলে দাবী করে সংস্কার কাজ বন্ধ করতে বলে। তাদের এই অযৌক্তিক দাবীর প্রতিবাদ জানালে তারা সংঘবদ্ধভাবে হামলা চালায়। এসময় তারা মুক্তিযোদ্ধার সামনেই তাঁর দুই পুত্রবধু নাসরিন ও খাদিজা বেগমকে বেধড়ক মার ডাং শুরু করে। বাধা দেয়ায় তারা আরও উগ্র হয়ে উঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে।

এতে পুত্রবধুদ্বয়ের মাথায় কাটা জখম হয়। তারা মাটিতে পড়ে গেলে হামলাকারীরা টানা হেচড়া করে শরীরের কাপড় চোপড় ছিড়ে ফেলে। একপর্যায়ে তারা নাসরিন ও খাদিজাকে টেনে তুলে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা টিপে ধরে দেয়ালের সাথে আছড়াতে থাকে। এতে মাথার কাটা জায়গায় আরও আঘাত লাগায় জখম গুরুত্বর হয়ে রক্ত ঝরতে থাকে।

হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে শুক্রবার বাড়িতে ফেরা মুক্তিযোদ্ধা ইব্রাহিমের পুত্রবধু নাসরিন বলেন, আমাদের আর্তচিৎকারে আশেপাশের মানুষ ও বাসার কাজে নিয়োজিত রাজ মিস্ত্রিসহ লেবাররা ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় হুমকি দেয় যে এই রাস্তা ছেড়ে দিতে হবে, নয়তো প্রাণে মেরে ফেলে হলেও রাস্তা ও বাড়ি সব দখল করে নেয়া হবে।

উপস্থিত লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় আমাকে ও আমার জা খাদিজাকে উদ্ধার করে প্রথমে নীলফামারী সদর হাসপাতালে নেয়। সেখানে রাতে চিকিৎসার পরও অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসক সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। আমার মাথার আঘাতে ৩ টি ও খাদিজার আঘাতের স্থানে ৪টি সেলাই দিতে হয়েছে। খাদিজার অবস্থা অস্থিতিশীল হওয়ায় এখনও রংপুরে চিকিৎসাধীন।

এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে আমরা খুবই আতংকে আছি। এখনও হামলাকারীরাসহ এলাকার কতিপয় দুর্বৃত্ত টাইপের মানুষ নানা হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে স্থানীয় মৃত রুপচন্দ্র দাসের ছেলে দীলিপ (২৮) ও প্রদীপ (২৫) এবং রামচন্দ্র দাসের ছেলে বলরাম (৩০) ভয়ভীতি দেখানো সহ ব্যাপক দাপট দেখিয়ে চলেছে। তারা মূলতঃ তাদের ভগ্নীপতি এক জজের প্রভাবে এমন সন্ত্রাসী আচরণ করছে। তারা ঘটনার দিনেও দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে এসে পায়তারা করেছে। পরে ৯৯৯ নম্বরে কল দেয়ায় পুলিশ আসার খবরে সরে পড়ে। কিন্তু এখন আবারও ত্রাস সৃষ্টি করে চলেছে।

মুক্তিযোদ্ধা জানান, এর আগেও এই চক্রটি উস্কানীমুলকভাবে বিরোধ সৃষ্টি করে বিগত ২৭/০৯/২০২২ তারিখে রাতের আধারে আমার বাড়ির চলাচলের পথে ইট দিয়ে দেয়াল তুলে যাতায়াত বন্ধ করেছিল। অথচ এই রাস্তাটি একান্ত আমাদের। এপথে আর কেউ চলাচলের প্রয়োজন নেই। তাছাড়া এই জায়গাটিও অন্য কারও নয়। তারপরও বহিরাগত হয়েও ওই ব্যক্তিরা সম্পূর্ণ জোর জবরদস্তি করে এই প্রতিবন্ধতকা তৈরী করে হয়রানীতে ফেলেছে।

এর প্রেক্ষিতে সৈয়দপুর থানায় ওইদিনই অভিযোগ দিয়েছিলাম। যার জিডি নং ১৯৬৪। প্রায় ১০ দিন পর একটি নোটিশ দিয়ে থানা কর্তৃপক্ষ উভয় পক্ষকে গোলাহাট পুলিশ ফাড়িতে ডেকে পাঠায়। সেখানে যথাসময়ে আমরা গেলেও বিরোধীপক্ষ উপস্থিত হয়নি। তারপরও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। জানতে পেরেছি প্রদীপ ও দীলিপ তাদের ভগ্নিপতি আদালতের জজকে দিয়ে থানায় মোবাইল করিয়ে প্রভাব বিস্তারের মাধ্যমে বিষয়টি ধামাচাপা দিয়েছে।

পরে এব্যাপারে পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহিন হোসেন এবং ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর সাবিয়া সুলতানাকে জানালে তারা মিমাংসার উদ্যোগ নিলেও প্রতিপক্ষ কোনভাবেই তাদের পাত্তা দেয়নি। ফলে তাঁরা উভয়ে ঘটনার সত্যতার আলোকে আমাদের পক্ষে প্রতিবেদন দিয়েছেন। তারপরও প্রতিপক্ষরা অপতৎপরতা অব্যাহত রেখেছে।

বিভিন্ন মাধ্যমে তারা আমাদেরকে এই বাড়ি বিক্রি করে চলে যাওয়ার কথা জানাচ্ছে। এতে সম্মত না হলে এভাবে বার বার পায়ে পাড়া দিয়ে ঝগড়া বাধিয়ে হয়রানী করাসহ মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে আমার দুই ছেলের সরকারী চাকুরী খাবে বলে হুমকি দিচ্ছে। এমনকি বলছে তোর মত মুক্তিযোদ্ধাকে মেরে ফেললে কিছুই হবেনা। আমাদের জজ আছে। তাকে দিয়ে সব আইন তোদের বিরুদ্ধে প্রয়োগ করবো।

দীলিপ ও প্রদীপ দিনরাত মেইন রোডে বহিরাগত লোকজন নিয়ে অবস্থান করে এসব ভয়ভীতি প্রদর্শণ করে চলেছে। এতে আমরা চরম জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই দুঃসহ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে এই সংবাদ সম্মেলনের মাধমে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ, মানবাধিকার সংগঠন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রীয় কমান্ড ও সর্বোপরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ ও সহযোগীতার আহ্বান জানাচ্ছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইব্রাহিম আলী ভান্ডারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, সমাজ সেবক ইসরাইল কোরানীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শতাধিক এলাকাবাসী।


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com