Logo
ব্রেকিং :
২ শিশুপুত্রসহ  ভাগ্নিকে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড কালিহাতী প্রেসক্লাবের নয়া সভাপতি রঞ্জন-সম্পাদক মিল্টন মানিকগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার গভর্নিং বডি নির্বাচন স্থগিত নেত্রকোনায় অনুকূলচন্দ্রের নগর পরিক্রমা সিরাজগঞ্জে বিরোধের জের ধরে  প্রতিপক্ষের   রোপনকৃত ৫০টি  চারা গাছ কর্তনের অভিযোগ নাগরপুরে ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিত  সাংবাদিকের  মৃত্যুতে নগরকান্দা প্রেসক্লাবে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ভাঙ্গা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেললাইন চালু করা হবে—-রেলপথ মন্ত্রী মোঃ জিল্লুল হাকিম সিরাজগঞ্জে শালুয়াভিটা সিনিয়র  মাদ্রাসায়  তিনটি পদে নিয়োগ পরীক্ষার  আগেই  মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে প্রার্থী চুড়ান্ত করার অভিযোগ  নাগরপুরে  শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ 
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

৫৮ বছর পর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে ভারত-বাংলাদেশ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু

রিপোর্টার / ৯১ বার
আপডেট বুধবার, ১ জুন, ২০২২

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:০১ জুন-২০২২,বুধবার।
দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অবশেষে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হল। ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি রেলস্টেশন থেকে বাংলাদেশের সীমান্ত চিলাহাটির ডাঙ্গাপাড়া এলাকা দিয়ে হুইসেল বাজিয়ে প্রবেশ করে যাত্রীবাহী আন্ত:দেশীয় মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেন।
বুধবার (০১ জুন) দুপুর ২ টা ১০ মিনিটের দিকে নীলফামারীর চিলাহাটি স্টেশনে ১০টি বগি নিয়ে ছুঁটে আসে ট্রেনটি। প্রথমদিন যাত্রী সংখ্যা ছিল ১৮ জন। এর মধ্যে ৫ জন ভারতীয় বাকীরা বাংলাদেশী। চিলাহাটি রেল ষ্টেশনে ৩৫ মিনিট বিরতির পর ২টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে
যাত্রা শুরু করে।
সকালে বাংলাদেশের রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম ও ভারতের রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব ভার্চুয়ালি ট্রেনটির উদ্বোধন করেন। এরপর ভারতের সময় সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে নিউ জলপাইগুড়ি ষ্টেশন থেকে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। ২টা ১০ মিনিটে চিলাহাটী রেলষ্টেশনে এসে থামে।
এসময় মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটির চালক, পরিচালক ও যাত্রীদের ফুল দিয়ে স্বাগত জানান বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিম অঞ্চলের মহা-ব্যবস্থাপক অসিম কুমার তালুকদার ও  ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রমিজ আলম।
এরপর ভারতীয় ইঞ্জিন পরিবর্তন করে লাগালো হয় বাংলাদেশের একটি ইঞ্জিন । ইঞ্জিনটি আগে থেকে রঙ্গিন কাগজ, বেলুন, ফেষ্টুনসহ নানা রংগে সাজিয়ে রাখা ছিল চিলাহাটি রেলষ্টেশনে। বিভিন্ন আনুষ্টানিকতা শেষে চিলাহাটি রেল ষ্টেশন থেকে ২ টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেল ষ্টেশনের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।
ভারতের জলপাইগুড়ি থেকে আসা মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে চালক হিসেবে ছিলেন বিবেকবান চৌধুরী, সহকারী চালক বাকসান কুমার, পরিচালক (গার্ড) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কৌশিক ঘোষ। আর চিলাহাটি থেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশের ইঞ্জিনে চালক হিসেবে ছিলেন শহীদুল ইসলাম, সহকারী চালক হাসান ইমান, পরিচালক (গার্ড) হিসেবে বিএম শহিদুল ইসলাম ও সহকারি পরিচালক শাহাজাহান আলী।
মিতালী এক্সপ্রেসে ১০টি বগির মধ্যে ছিল ৪টি এসি বাথ বগি, ৪টি এসি চেয়ার বগি, ১টি পাওয়ার ও ১টি ব্রেকভ্যান বগি।
ভারতের ইঞ্জিনের চালক ও পরিচালক (গার্ড) সহ ইঞ্জিনটি চিলাহাটি রেলষ্টেশনে অবস্থান করছেন। মিলাতী এক্সপ্রেস ঢাকা থেকে ফিরে চিলাহাটিতে এলে পুনরায় সেই ইঞ্জিন লাগিয়ে তাঁরা ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন বলে জানা গেছে।
এদিকে মিতালী এক্সপ্রেসকে দেখতে সকাল থেকে অসংখ্য মানুষ ভিড় জমান চিলাহাটি রেল ষ্টেশনে। এমনকি পাশ্ববর্তী পঞ্চগড়, দিনাজপুর ও লালমনিরহাটের বিভিন্ন উপজেলার মানুষও আসেন এই ট্রেনকে এক নজর দেখতে। চিলাহাটি রেল ষ্টেশনের মাষ্টার ময়নুল হক জানান, বেলা বাড়ার সাথে সাথে মানুষজন আসা শুরু করেন এবং দুপুরের পর ষ্টেশন ও এর আশপাশের এলাকা কানায় কানায় ভরে যায় মানুষে।
বাংলাদেশের চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথে যাত্রীবাহি ট্রেন চলাচল শুরু হওয়ায় সবার মাঝে বিরাজ করছে আনন্দ উল্লাস। ইতিহাসের সাক্ষী হতে কৌতুহলী মানুষ স্টেসনের প্লাটফরম ছাড়াও রেললাইনের ধারে দাঁড়িয়ে হাত নেড়ে স্বাগত জানায় ট্রেনের চালক, পরিচালকসহ যাত্রীদের।
বিকাল ৪ টায় রেলওয়ের শহর সৈয়দপুর স্টেশনে পৌঁছালে ঢাকা থেকে আসা চিলাহাটি গামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেন সৈয়দপুর-পার্বতীপুর লাইনে চলমান থাকায় কয়েক মিনিটের অনির্ধারিত বিরতি নেয় মিতালী এক্সপ্রেস। এসময় এখানেও উল্লাসে মেতে উঠে উপস্থিত জনতা ও স্টেসনের কর্মকর্তা কর্মচারীরা।
সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোখছেদুল মোমিন জানান, জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমাদের দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান হলো। কিন্তু সৈয়দপুরসহ নীলফামারী জেলায় এই ট্রেনের কোন স্টপেজ না থাকায় এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে এ অঞ্চলের মানুষ।
তিনি বলেন, মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি চালু হওয়ায়  মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নতির পাশাপাশি এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন ঘটবে। সৈয়দপুরের সাথে ভারতের বাণিজ্যিক যোগসূত্র অনেক আগে থেকেই। তাই এখানে স্টপেজ দিয়ে টিকিট বিক্রয়ের ব্যবস্থা করলে সেক্ষেত্রে আরও প্রসার ঘটবে এবং চিকিৎসা ও পর্যটনের জন্য ভ্রমনেচ্ছুকদের এই রেলরুট ব্যবহারের সুযোগে রেলওয়ের আয় ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে। যা উভয়দেশের জন্যই নতুন দ্বার উন্মোচন করবে। তাই তিনি দ্রুত এব্যাপারে উদ্যোগ নিতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।
উল্লেখ্য যে, ১৯৪৭ সালে ভারতের স্বাধীনতার আগে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি দিয়ে সরাসরি কলকাতার রেল যোগাযোগ চালু ছিল। ১৯৬৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ভারত-পাকিস্তানের যুদ্ধের পর এই রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই রেলপথটি পূন:রায় সচল করতে উদ্যোগী হয়।
তার ফলে দীর্ঘ ৫৭ বছর পর ২০২০ সালের ১৭ ডিসেম্বের বাংলাদেশ-ভারত মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি চলাচলের ভার্চুয়াল উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে সে সময় যাত্রীবাহি ট্রেনটির চলাচল করা সম্ভব না হলেও তখন থেকে এই রুটে মালবাহী ট্রেন চলাচল করছে। (ছবি আছে)
শাহজাহান আলী মনন
সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি
মোবাইল -০১৭৭৩০২০২১৬
তারিখ -০১/০৬/২০২২ ইং


এ জাতীয় আরো খবর
Tech Support By Nagorikit.Com