Logo
ব্রেকিং :
সরকার পরিবর্তন করার একমাত্র পথ নির্বাচন: পরিকল্পনামন্ত্রী সিরাজগঞ্জের তাড়াশে গৃহবধূকে হত্যা শ্বশুড়-শ্বাশুড়ি আটক সিরাজগঞ্জে বহুলীতে মতিয়ার রহমান মিঞা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন নেত্রকোনায় আর্ন্তজাতিক সিওড দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা নবনিযুক্ত আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ডিআইজির শুভেচ্ছা ঈশ্বরগঞ্জে যুবমহিলা লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত নড়াইল জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচনে আলোচনার শীর্ষে শেখ সাজ্জাদ হোসেন মুন্না নাগরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সাথে এমপি টিটুর মতবিনিময় সভা নগরকান্দায় বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সংগ্রহ সভা অনুষ্ঠিত  চৌহালী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

টাঙ্গাইলের নয়টি উপজেলায় আওয়ামী লীগের ১৮জন বিদ্রোহী প্রার্থী!

রিপোর্টার / ১৪ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ৫ মার্চ, ২০১৯

মুক্তার হাসান,টাঙ্গাইল থেকে ঃ ০৫ মার্চ,মঙ্গলবার।
টাঙ্গাইলের ১২টি উপজেলার তিনটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রাপ্তদের বিরুদ্ধে দলের কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী না হলেও নয়টিতেই চেয়ারম্যান পদে ১৮জন বিদ্রোহী প্রার্থী সোমবার (০৪ মার্চ) মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এছাড়া টাঙ্গাইল সদর, কালিহাতী, মির্জাপুর, বাসাইল ও নাগরপুর উপজেলায় বিএনপির ছয়জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, ধনবাড়ী উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সহসভাপতি হারুন অর রশীদ হিরা ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। এ উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান মীর ফারুক আহমেদ এবং সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী কিসলু মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। মোহাম্মদ আলী মনোনয়নপত্র সংগ্রহও করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দুজনের কেউই জমা দেননি। ফলে হারুন অর রশীদ বিনাপ্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। তিনি টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনের সাংসদ কৃষিমন্ত্রী মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের আপন খালাতো ভাই। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ এইচ এম কামরুল হাসান জানান, মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই ও প্রত্যাহারের পর হারুন অর রশীদ থাকলে তাকে নির্বাচিত ঘোষনা করা হবে।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত দলের জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আনছারী ছাড়াও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়া সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়ছেন।

মধুপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও দলের উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ছরোয়ার আলম খান আবু এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সহসভাপতি ইয়াকুব আলী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

গোপালপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউনুস ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এ উপজেলায় আওয়ামী লীগের আরো তিনজন বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এরা হচ্ছেন দলের উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তালুকদার ওরফে সুরুজ, সাবেক সভাপতি খন্দকার মোঃ গিয়াস উদ্দিন ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাছির উদ্দিন রনি।

ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদে আওয়ামী লীগ মনোনিত বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চারজন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এরা হচ্ছেন ভূঞাপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুৎ, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ, সাবেক ছাত্র নেতা এটিএম হাবিব উল্লাহ ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুদুর রহমান কর্নেল।

ঘাটাইল উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত দলীয় উপজেলা শাখার আহবায়ক শহিদুল ইসলাম লেবু মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আরিফ হোসেন, দলের উপজেলা শাখার সাবেক যুগ্ম সম্পাদক শহীদুল ইসলাম হেস্টিংস ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি তুহিন আব্দুল্লাহ’র ছেলে সৈয়দ এহসান আব্দুল্লাহ ও আওয়ামী লীগ নেতা শফিকুল ইসলাম খান জনি।

কালিহাতী উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত বর্তমান চেয়ারম্যান ও দলের উপজেলা শাখার সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার এবং বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী বিএকম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মতিউল আলম তালুকদার মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

নাগরপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত দলের উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান কুদরত আলী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এখানে দলীয় কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হননি। বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মোঃ আব্দুস সামাদ দুলাল ও বিএনপি নেতা আরিফুর রহমান সামি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

দেলদুয়ার উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত দলের উপজেলা শাখার সভাপতি ফজলুল হক এবং মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মারুফ মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
মির্জাপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত মীর এনায়েত হোসেন মন্টু মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এ উপজেলায় আওয়ামী লীগের কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হননি। তবে জেলা বিএনপি সদস্য ফিরোজ হায়দার খান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

সখীপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনোনিত জুলফিকার হায়দার কামাল মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাঈদ আজাদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম খান।

বাসাইল উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত দলের উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান গাউছ এবং বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী অলিদ ইসলাম মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এছাড়াও এ উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপির কাজী শহিদুল ইসলাম ও উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নিজামুল ইসলাম মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com