Logo
ব্রেকিং :
সরকার পরিবর্তন করার একমাত্র পথ নির্বাচন: পরিকল্পনামন্ত্রী সিরাজগঞ্জের তাড়াশে গৃহবধূকে হত্যা শ্বশুড়-শ্বাশুড়ি আটক সিরাজগঞ্জে বহুলীতে মতিয়ার রহমান মিঞা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন নেত্রকোনায় আর্ন্তজাতিক সিওড দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা নবনিযুক্ত আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ডিআইজির শুভেচ্ছা ঈশ্বরগঞ্জে যুবমহিলা লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত নড়াইল জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচনে আলোচনার শীর্ষে শেখ সাজ্জাদ হোসেন মুন্না নাগরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সাথে এমপি টিটুর মতবিনিময় সভা নগরকান্দায় বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সংগ্রহ সভা অনুষ্ঠিত  চৌহালী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

অগ্নিঝরা ২৭শে মার্চ: ইতিহাসের এই দিনে

রিপোর্টার / ১১ বার
আপডেট বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০১৯

কালের কাগজ ডেস্ক:: ২৭ মার্চ ২০১৯
২৬শে মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে বঙ্গবন্ধু কর্তৃক স্বাধীনতা ঘোষণার মাধ্যমে শুরু হয় বাঙালি জাতির চূড়ান্ত স্বাধীনতা সংগ্রাম। অন্যদিকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের বর্বরতার নীল নকশা বাস্তবায়নে ঝাঁপিয়ে পড়ে নিরস্ত্র বাঙালির উপর। এদিকে ”যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে শত্রুর মোকাবেলা করতে হবে” স্বাধীনতা সংগ্রামের বঙ্গবন্ধুর এই মূলমন্ত্রকে অন্তরে ধারণ করে বাঙালিরাও প্রতিরোধ সংগ্রাম গড়ে তোলে।

২৬শে মার্চ জারি করা কারফিউ ২৭শে মার্চ সকালে সাময়িকভাবে প্রত্যাহার করে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে অবস্থানরত সকল বিদেশী সাংবাদিকদের কড়া সেনা প্রহরায় সরাসরি বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। বিশেষ বিমানে তাঁদের ঢাকা ত্যাগ করতে বাধ্য করা হয়। তবে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর দৃষ্টি এড়িয়ে দু’জন সাংবাদিক অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে ঢাকায় থেকে গিয়েছিলেন। তাঁরা হলেন ডেইলি টেলিগ্রাফের সাইমন ড্রিং এবং এএফপির ফটোগ্রাফার মিশেল।

কারফিউ প্রত্যাহারের সাথে সাথে জীবন বাঁচাতে ঢাকা শহর ছেড়ে দলে দলে নাগরিকরা অন্যত্র নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে থাকে। গোটা ঢাকা শহর জুড়ে পাক হানাদার বাহিনীর নির্মমতার শিকার হাজার হাজার নিরীহ বাঙালির প্রাণহীন দেহ ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা যায়। অন্যদিকে প্রতিরোধ সংগ্রাম গড়ে তোলার প্রত্যয় নিয়ে বুড়িগঙ্গার ওপারে জিঞ্জিরায় মুক্তিযোদ্ধারা সমবেত হতে থাকেন।

’৭১ এর এই দিনে চট্টগ্রাম শহরের চারপাশসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় মুক্তিযোদ্ধারা পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন এবং হানাদারদের বিরুদ্ধে প্রচণ্ড লড়াই শুরু করেন। চট্টগ্রামের দেওয়ানহাট থেকে পাকসেনাদের চারটি গাড়ি হালিশহরের দিকে এগোতে থাকলে ল্যান্স নায়েক আবদুর রাজ্জাক অতর্কিতে পাক সেনাদের ওপর আক্রমণ করে বেশ কয়েকজনকে হত্যা করেন এবং গাড়িটি ধ্বংস করে দেন। ইপিআর সৈনিকরা এখান থেকে বেশ কিছু অস্ত্র এবং গোলাবারুদ উদ্ধার করেন।

ইতোমধ্যে বিভিন্ন রাষ্ট্র বাংলাদেশে চলমান পাকিস্তানিদের বর্বরতা সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করে। ’৭১ এর এই দিনে ভারতীয় লোকসভায় ভাষণদানকালে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশ প্রতিরোধ যুদ্ধ সম্পর্কে বলেন, পূর্ববঙ্গের সমগ্র জনগণ এক বাক্যে গণতান্ত্রিক কর্মপন্থা গ্রহণ করেছে। একে আমরা অভিনন্দন জানাই। ইন্দিরা গান্ধী বলেন, ভারত সরকার পূর্ববঙ্গের সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে সজাগ রয়েছে এবং যথাসময়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।


এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com