Logo
ব্রেকিং :
কালিয়ায় নিখোজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার নড়াইলের নিরিবিলি পিকনিক স্পট থেকে অবৈধ বন্যপ্রাণী উদ্ধার ২৫ হাজার টাকা জরিমানা নড়াইলে ভ্যান ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু আহত -৬ মির্জা ফখরুলরা স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ পাকিস্তান বানাবে এখন স্বপ্ন দেখছে শ্রীলংকা বানাবে –দুর্জয় হরিপুরে বসত ভিটার জমির জেরে ছেলের হাতে মা খুন গ্রেপ্তার ৩   ঈশ্বরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন লোহাগড়ায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে এক যুবকের মৃত্যু পাংশার মৈশালা পালপাড়া মন্দিরে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের সমাপনী টাঙ্গাইলে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ পরিষদের নবগঠিত কমিটি গঠণ ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সারাদেশে আ’লীগের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে বিএনপির বিক্ষোভ
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

মানিকগঞ্জে ধানের বাম্পার ফলন বোরো চাষিদের চোখেমুখে হাঁসির ঝিলিক

রিপোর্টার / ২১ বার
আপডেট বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১

রামপ্রসাদ সরকার দীপু ,স্টাফ রিপোর্টার:১৬ জুন-২০২১,বুধবার।

মানিকগঞ্জের ৭টি উপজেলাতে চলতি মৌসুমে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকের অকান্ত পরিশ্রম আর অনুকুল আবহাওয়ার এবং নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের কারনে এবার সারা দেশের মত মানিকগঞ্জ, ঘিওর, দৌলতপুর, শিবালয়, হরিরামপুর, সিংগাইর, সাটুরিয়াসহ প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্জলে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। সার,বীজ,কীটনাশক,আগাছা দমন, মাড়াই সহ প্রতিমন ধানের উৎপাদন খরচ প্রায় ৬শ’ টাকা থেকে ৭শ’ টাকা হলেও বর্তমানে মানিকগঞ্জের ঘিওর, বরংগাইল, তরা, ঝিটকা, বাল্লা, বায়রা, হাট বাজারে প্রতি মন ধান বিক্রি হচ্ছে ৯শ’ ৫০ টাকা থেকে ১ হাজার ৫০ টাকা। সব মিলিয়ে প্রতিমন ধানে প্রায় ৩শ’ থেকে ৪শ’টাকা লাভ হচ্ছে। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর পরিবেশ অনুকুলে থাকায় এবং ভাল দাম পেয়ে সাধারন কৃষকেরা বোরো ধান চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে তারা সফল হচ্ছে।
জেলার সদর, সাটুরিয়া, ঘিওর, দৌলতপুর, শিবালয় সারা বছর কঠোর পরিশ্রম করে এ অঞ্চলের প্রান্তিক কৃষক। আলু, মিষ্টি লাউ, ভুট্রা, সরিষাসহ বিভিন্ন ফসলের পাশাপাশি বোরো আবাদ করে তারা এবার ন্যায্য দাম পাচ্ছে। স্থানীয় এক শ্রেণির অসাধু, অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ী ও দালালচক্র কৃষকদের অসহায় অবস্থার সুযোগ নিয়ে ধানের বাজার নিয়ন্ত্রন করতে পারেনি । এবার চলতি মৌসুমে ধান কাটার মেশিন ভারভেস্টর দিয়ে ধান কাটা, মাড়াইয়ের ফলে কৃষদের ধান ঘরে তুলতে খরচ কম হচ্ছে। অপর দিকে হাট -বাজারে ধানের দাম ভাল থাকায় প্রান্তিক ও বর্গাচাষিরা মহা আনন্দে দিন কাটাচ্ছে। বিগত বছর গুলোতে ধান চাষের আগে এলাকার অধিকাংশ কৃষক চড়া সুদে এনজিও ও ব্যাংক ও সুদে টাকা ঋণ নিয়ে চাষাবাদ শুরু করে। বোরো মৌসুমে ধান কাটার শুরুতেই ঋণের টাকার চাপ, শ্রমিকের মুজুরি পরিশোধের চাপে বোরো ধান ক্ষেত থেকেই ধান পানির দামে বিক্রি করতে হয়েছে সাধারন কৃষকদের। কিন্তু এবার কৃষকদের ধান, আলু, সরিশা, ভুট্রা এবং শবজী চাষ করে তারা ভালো লাভ করায় অনেকের ভাগ্যের চাকা ঘুরে দারিয়েছে। উপজেলার গোলাপ নগর গ্রামের রাজা মিয়া এই অঞ্চলের সব চেয়ে বড় কৃষক। তিনি এবার প্রায় ২০ বিঘা জমিতে বোরো আবাদ করেছে। এবার তার বোরো ধানের আব্দা অন্যান্য বছরের চেয়ে ভাল হয়েছে। ধান কাটার কাজে তিনি নতুর প্রযুক্তি, উন্নত জাতের বীজ এবং ভারভেস্টার ব্যবহার করায় ধান কাটা এবং মাড়াই করতে অনেক টাকা বেচে গেছে। কাজেই অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার তার বোরো ধানে লাভে হবে অনেক টাকা। শিবালয়ের বরংগাইল বাজারে কৃষক জুলহাস জানান, প্রায় ১৫ বিঘা জমিতে ধান আবাদ করেছেন । এবার করচ কম হয়েছে। লাভের অংশ অন্যান্য বছরের তুলনায় ভাল হবে। বড়কৃষ্ণপুর গ্রামের আজাহার, ঠান্ডু ৬ বিঘা, আজাহার ৫ বিঘা ,নজু মোল্লা ৩ বিঘা, বড়কৃষ্ণপুর গ্রামের আদর্শ কৃষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ৫ বিঘা জমিতে বোরো আবাদ করেছি। কীটনাশক, সেচ, হাল দেওয়া, আগাছা দমন, ধান মাড়াই ও কাঁটাসহ প্রতি মন ধানে প্রায় ৫/৬শ’ টাকা খরচ হয়েছে। কাহেতারা গ্রামের কৃষক সাকাওয়াত জানান, ৪ বিঘা জমি ভাড়া করে বোরো আবাদ করেছি। প্রতি মন ধান উৎপাদন করতে আমার খরচ হয়েছে প্রায় ৬শ টাকা। কিন্তু বর্তমানে প্রতি মন বোরো ধান ঘিওর হাটে বিক্রি হচ্ছে ৯শ’ টাকা থেকে ১ হাজার ৫০ টাকা। কাজেই এবার ধানে অনেক টাকা লাভ হবে।

মানিকগঞ্জ জেলা কৃষি সম্প্রসারন আধিদপ্তরে উপ-পরিচালক মোঃ শাহজাহান আলী বিশ^াস জানান, এবার চলতি মৌসুমে বোরো ৪৭ হাজার হেক্টর জমিতে আবাদ করা হয়েছে। ৩ লাখ ৩৬ হাজার মেট্রিক টন চাল উৎপাদন হবে। গত বছর ৬ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছিল। আবাদকৃত বিভিন্ন জাতের ধানের মধ্যে রয়েছে উফসি, স্থানীয় এবং হাইব্রিড প্রজাতির ধান। চলতি মৌসুমে সব চেয়ে বেশি আবাদ হয়েছে ব্রি-ধান-২৮ ও ব্রি-ধান ২৯, ৫০, ৫৯, ৬২, ৬৩, ৬৪ ও ৭৪। হ্ইাব্রিড এসএলবিএইচ, হীরা, তেজ,পাইডনিয়ার ও জাগরন এ ছাড়া আবাদ করা হয়েছে উন্নত জাতের ব্রি-ধান ৫৮। তিনি আরো পরিবেশ ও আবহাওয়া অনুকুলে থাকার দরুন চলতি মৌসুমে বোরো আবাদ ভাল হয়েছে। ভাল দাম পেয়ে সাধারন কৃষকেরা চাঙ্গা হয়ে গেছে। সরকারিভাবে সারা দেশে ধান ক্রয় শুরু হয়েছে। এলাকার সাধারন কৃষকদের প্রাণের দাবি দালাল, ফড়িয়া সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ধান না কিনে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় করে তা হলে সরকারের মহৎ উদ্যোগ সফল হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com